বিনোদন

কিছু ছবির ক্যাপশন হয় না

‘কিছু ছবির ক্যাপশন হয় না’ এমন বাক্য লিখে কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন চিত্রনায়ক খালিদ হোসাইন সম্রাট। দেশবরেণ্য মানুষ ও কিংবদন্তী অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক সম্প্রতি প্রয়াত হয়েছেন।

নায়করাজ নিজের পরিবারে ছিলেন একজন উজ্জ্বল ব্যক্তি, মধ্যমনি। দুই ছেলে, বাচ্চাকাচ্চা ও ছেলের স্ত্রীসহ পুরো পরিবার মাঝে মাঝেই এখানে সেখানে ট্যুর দিতেন। বাসাতেও হতো আড্ডা, আনন্দ। কিন্তু সেই মধ্যমনি যখন অনুপস্থিত তখন ঘিরে থাকবে শূন্যতা। আর মাঝে মাঝেই সেইসব স্মৃতিময় মুহূর্ত তাদের প্রিয়জনদের মনের জগতে হানা দেবে। এটাই তো স্বাভাবিক।

নায়করাজ চলে যাওয়ায় দেশ যেমন একজন গুণী অভিনেতাকে হারিয়েছে। তেমনি পরিবার হারিয়েছে প্রিয় মানুষটিকে। তাই তো তাঁকে ঘিরেই এতো স্মৃতিচারণ।

বাবাকে মনে পড়ে ছেলেদের। সেই মনে পড়া, স্মৃতিগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন সন্তানেরা। এই যেমন আজ সম্রাট বাবার সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি দুর্লভ মুহূর্ত ফেসবুকে শেয়ার করেছেন। এসবই তো নস্টালজিক করে দেয়। আবেগ জমা হয় বুকে। এসব মুহূর্তের সত্যিই ক্যাপশন হয় না।
২১ সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১৩ মিনিটে ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন নায়করাজ রাজ্জাক। বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী অভিনেতা রাজ্জাক ‘নায়করাজ’ হিসেবে নামে সুপরিচিত। ষাটের দশকের মাঝের দিকে তিনি চলচ্চিত্র অভিনেতা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। ষাটের দশকের বাকি বছরগুলোতে এবং সত্তরের দশকেও তাঁকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পের প্রধান অভিনেতা হিসেবে বিবেচনা করা হতো।