অন্যরকম খবর

চার হাজার বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী দই!

বুলগেরিয়ার সঙ্গে যেন দইয়ের ইতিহাস ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এমনকি বুলগেরিয়ার ইতিহাস ঘাঁটলেও দইয়ের কথা জানা যাবে।

দেশটিতে সর্বত্র দই পাওয়া যায়। শুধু তাই নয়, বহু ভিন্ন ধরনের দইয়ের দেখাও মেলে দেশটিতে। বিভিন্ন খাবারেও তাই দই ব্যবহার করা হয়।

বুলগেরিয়ার ঐতিহ্যবাহী একটি খাবারের নাম ট্যারাটর। একটি ঠাণ্ডা সুপ এটি, যার মূল উপাদান দই, পানি, শশা, আখরোট ও অন্যান্য উপাদান।স্থানীয় অধিবাসী নিকোলা স্টইকোভ বলেন, ‘আমরা সর্বত্র দই ব্যবহার করি। আমি প্রতিদিন তিন পাত্র দই খাই। একটি সকালে নাশতার সঙ্গে, একটি দিনে এবং অন্য একটি রাতে ঘুমানোর আগে।’

বহু বুলগেরিয়ান তাদের দেশের জনগণের সঙ্গে দইয়ের ইতিহাসের কথা স্মরণ করেন। এ ইতিহাস অন্তত চার হাজার বছরের পুরনো বলে তাদের বিশ্বাস।চার হাজার বছর আগে নমেডিকরা সেখানে বসবাস করত। তারা দুধ বহন করত চামড়ার থলেতে। আর সেই দুধ ব্যাকটেরিয়ার সংস্পর্শে দই হয়ে যেত।

বুলগেরিয়ার গবেষকরা প্রথম দইয়ের গবেষণায় এর ভেতরের উপাদানগুলো সম্পর্কে গবেষণায় পরিষ্কার ধারণা পান। এরপর অবশ্য বিশ্বের নানা দেশের গবেষকরা দই নিয়ে গবেষণা করেছেন। তবে বুলগেরিয়া দইয়ের সেই ঐতিহ্য এখনও ধরে রেখেছে।

জুমবাংলানিউজ/আর