খেলা-ধুলা

‘ঘুরে’ দাঁড়িয়ে ব্যাটে জবাব দিতে লড়ছে পাকিস্তান , কিন্তু.

দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুটা বেশ ভালো হয়েছে পাকিস্তানের। প্রথম ইনিংসে ৬৭ রানে ৮ উইকেট হারিয়েছিল পাকিস্তান। সেখানে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩ উইকেটে ১৫৫ রান অনেক ভালো ব্যাটিং! তবে যত ভালোই হোক, ম্যাচের ভাগ্যে কী লেখা আছে, তা সহজেই অনুমানযোগ্য। ক্রিকেটের গৌরবময় অনিশ্চয়তার কথা মাথায় রেখেও বলতে হচ্ছে, পাকিস্তানের পক্ষে এই ম্যাচ বাঁচানো প্রায় অসম্ভবের কাছাকাছি।

জয়ের লক্ষ্য ৪৯০। সেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে পাকিস্তানকে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে করতে হবে আরও ৪২০ রান। হাতে পুরো দুটি দিন আর ৭ উইকেট আছে বটে। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ান পেসারদের তোপ সামলে টিকে থাকা যে বড্ড কঠিন! ৫০ রান করে উইকেটে আছেন প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়া ইউনিস খান। সাবধানী আরেক ব্যাটসম্যান মিজবাউল হক ২ রানে ব্যাট করছেন।

টেস্ট ক্রিকেটের ১৩৯ বছরের ইতিহাসে ৪০০ বা তার বেশি রান তাড়া করে ম্যাচ জেতার ঘটনা মাত্র চারটি। সর্বোচ্চ ৪১৮ রান তাড়া করে এই অস্ট্রেলিয়াকেই ২০০৩ সালে অ্যান্টিগায় হারিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

গ্যাবা টেস্টের আরও ১৮০ ওভার বাকি। এর আগে চতুর্থ ইনিংসে এখানে ১৫০ ওভারের বেশি খেলতে পারেনি কোনো দল। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ ১৩৭.৫ ওভার খেলার রেকর্ড আছে। মেলবোর্নে ১৯৯০ সালের জানুয়ারির সেই ম্যাচে চতুর্থ ইনিংসে ৩৩৬ রান করেছিল তারা। ম্যাচটি হেরেছিল ৯২ রানে।

পাকিস্তান নিজেদের জন্য ম্যাচটি কঠিন করে ফেলেছে আসলে প্রথম ইনিংসেই। ৬৭ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলায় ১০০ রানের নিচে অলআউট হওয়ার শঙ্কা জেগেছিল। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদের অপরাজিত ৫৯ রানে শেষাবধি ১৪২ রান করতে পারে তারা। পাকিস্তানকে ফলোঅন করায়নি অস্ট্রেলিয়া। ২৮৭ রানের বড় লিড পেলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে রান তোলে ঝড়ের গতিতে। উসমান খাজা আর অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের ফিফটিতে ৩৯ ওভারে ৫ উইকেটে ২০২ রান তুলে ঘোষণা করে দেয় ইনিংস। সূত্র: ক্রিকইনফো

ভিডিও নিউজ : এটিই ইতিহাস এর একটি সেরা ফ্রি কিক; বিশ্বাস না হলে নিজের চোখেই দেখুন (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment