গাজীপুর ঢাকা বিভাগীয় সংবাদ

গাজীপুরে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টার পিএস পরিচয়দানকারী প্রতারক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর: প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস পরিচয় দিয়ে সচিবালয়সহ বিভিন্ন সরকারী সংস্থায় চাকুরী দেওয়ার নামে মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণের অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে গাজীপুরে এক প্রতারককে আটক করেছে র‌্যাব-১। আটক মো. সাব্বির মন্ডল (২৭) গাইবান্ধার সাঘাটা থানার উত্তর গুটিয়া সরদার পাড়া এলাকার আইয়ুব আলীর ছেলে। সাব্বিরের বর্তমান ঠিকানা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের গাছা থানার হারিকেন রোড এলাকার সালাউদ্দিন প্লাজার সামনের জনৈক মো: নাসির উদ্দিনের বাড়ীর ভাড়াটিয়া।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুরের পোড়াবাড়ী র‌্যাব-১ স্পেশালাইজড কোম্পানীর কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ২ টি মোবাইল ও ৮টি সিমকার্ড উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, বুধবার সন্ধ্যায় গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের বোর্ডবাজার এলাকায় জয়ের পিএস অবস্থান করছে শুনে সেখানে গিয়ে সাব্বিরকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে যে, দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন উপায়ে এই ধরনের প্রতারণা করে আসছে। সে বিভিন্ন সময় প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব কখনো প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস সামসুল/মাসুদ/মনির নামে পরিচয় দিয়ে বগুড়া-৫ আসনের এমপি মো. হাবিবুর রহমান, গাইবান্ধা-৩ আসনের এমপি ডা: ইউনুস সরকার, রবিশাল-৫ আসনের এমপি জেবুন্নেসা আফরোজ, খুলনা-৩ আসনের এমপি মনুজান সুফিয়ান, কক্সবাজার-৪ আসনের এমপি আব্দুর রহমান, সিলেট-৩ আসনের এমপি মাহমুদুর সামাদ, গাজীপুর-৫ আসনের এমপি মেহের আফরোজ চুমকি, গাজীপুর-৩ আসনের এমপি এড. মো. রহমত আলী, লালমনির হাট-১ আসনের এমপি মো. মোতাহার হোসেন, নারায়ানগঞ্জের এমপি শামীম ওসমান এবং গোলাম দস্তগীর গাজী, ঢাকার এমপি এড. সাহারা খাতুনসহ ৩০ থেকে ৪০ জন এমপি’র নিকট মোবাইল ফোনে আবার কখনো কখনো এসএমএস এর মাধ্যমে একাদশ জাতীয় নির্বাচন-২০১৮ এ মনোনয়ন পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে প্রত্যেকের কাছে লক্ষ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। এ ছাড়াও বিভিন্ন মন্ত্রী, এমপি, সচিব, ব্যবসায়ীদেরকে ফোন দিয়ে বিভিন্ন চাঁদা, ঘুষ, চাকুরীর তদবির করে আসছিল। ওইসব এমপি মহোদয়গণের অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার সন্ধ্যায় অবস্থান নিশ্চিত হয়ে সাব্বির মন্ডলকে আটক করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে ব্যাপকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে জানায় সে দীর্ঘদিন ধরে প্রধানমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস পরিচয় দিয়ে সচিবালয়সহ বিভিন্ন সরকারী সংস্থায় চাকুরী দেওয়ার নামে বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।