খেলাধুলা

ক্রিকেটে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন শচীন টেন্ডুলকারের ছেলে অর্জুন টেন্ডুলকার

অর্জুন টেন্ডুলকার। ভারতীয় কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারের ছেলে। নিজেও ক্রিকেটার। অসাধারণ পারফরম করে প্রতিনিয়ত মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছেন তিনি। ফের এর প্রমাণ দিলেন। এবার চলমান স্পিরিট অব ক্রিকেট গ্লোবাল চ্যালেঞ্জে মনোমুগ্ধকর পারফরম করে আলো কেড়ে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া মিডিয়ার।

এ টুর্নামেন্টে ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়ার হয়ে খেলছেন অর্জুন। বৃহস্পতিবার বোউরালের ব্রাডম্যান ওভাল গ্রাউন্ডে হংকংয়ের বিপক্ষে টি২০ ম্যাচে খেলতে নামেন তিনি। এ ম্যাচে অনন্য অলরাউন্ড পারফরম করে গণমাধ্যমে ঝড় তুলেছেন ১৮ বছরের এ ক্রিকেটার।

অবশ্য ক্রিকেটে বাবার পথে হাঁটেননি অর্জুন। শচীন ছিলেন স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান। সেখানে বোলিংটাকে বেছে নেন ক্রিকেট ঈশ্বরপুত্র। বাঁ হাতে তোলেন গতির ঝড়। তবে ব্যাটিংটাও ভালো করেন তিনি। এর প্রমাণ পাওয়া গেছে এই ম্যাচে। ব্যাট হাতে ২৭ বলে ৪৮ রানের পাশাপাশি বোলিংয়ে শিকার করেন ৪ উইকেট।

দীর্ঘদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়ে আসছেন টেন্ডুলকারপুত্র। গত বছর দলকে কোচবিহার ট্রফি জেতাতে রাখেন অসাধারণ অবদান। এর পর থেকেই লাইমলাইটে রয়েছেন তিনি।

তবে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড আয়োজিত টুর্নামেন্টে পারফরম করতে পেরেই বেশি খুশি লিটল মাস্টারের ছেলে, ‘ডন ব্রাডম্যানের নামের এ মাঠে খেলতে পেরে আমি মহাখুশি। এটি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। সত্যিকার অর্থেই অবিশ্বাস্য।’

অর্জুন বাবাকে নয়, আদর্শ মানেন অজি পেসার মিচেল স্টার্ক ও ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকসকে। ৬ ফুট লম্বা এ তরুণ ক্রিকেটার ছোটবেলা থেকেই পেসার হওয়ার স্বপ্ন দেখেন, ‘আমি বেশ লম্বা। শরীরে শক্তিও অনুভব করি। ছোটবেলা থেকেই জোরে বল করতে ভালো লাগে। ভারতীয় দলে ভালো মানের খুব পেসার নেই। তাই এতেই চিন্তা কেন্দ্রীভূত করেছি।’

বাবা কিংবদন্তি হওয়াও স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা প্রত্যাশার চাপ আসার কথা। তবে চাপটাপ বলে কিছু মনে করেন না অর্জুন, ‘আমি কোনো চাপ নিই না। বোলিংয়ে সর্বোচ্চ গতিতে বল করার চেষ্টা করি। আর ব্যাটিংয়ের সময় নিজের মতো করে শট খেলি। মারার বল মারি, ছাড়ার বল ছাড়ি। ’

হিন্দুস্তান টাইমস, নিউজ১৮