আইন-আদালত জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ

কৌশলে সহকর্মীকে ধর্ষণ, প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন

[better-ads type='banner' banner='1187323' ]

প্রতীকী ছবি

জুমবাংলা ডেস্ক : কুষ্টিয়ায় সহকর্মীকে ধর্ষণের দায়ে একটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত শিক্ষক শরিফুল ইসলামের বাড়ি মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর উপজেলার ভবরপাড়া গ্রামে।

মঙ্গলবার (২১ মে) কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ১৬ ধারা মোতাবেক এই রায় ঘোষণা করেন। এসময় আসামি শরিফুল ইসলাম আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

শরিফুল ইসলাম মুজিবনগর আম্রকানন নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। নির্যাতিত ওই নারীও সেখানে শিক্ষকতা করতেন। ২০১৬ সালের ১৩ মে মাধ্যমিক স্কুল শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশ নিতে প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামের সঙ্গে কুষ্টিয়া যান ওই নারী। সেখানে বড়বাজার এলাকায় আল আমিন আবাসিক হোটেলে মামা ও ভাগ্নী পরিচয়ে আলাদা কক্ষ ভাড়া নেন তারা। পরদিন ভোরে শরিফুল ইসলাম ঐ শিক্ষিকাকে ধর্ষণ করে ও বিষয়টি কাউকে জানালে হত্যার হুমকি দেন। ধর্ষণের পর ওই শিক্ষিকা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে ইজিবাইক ভাড়া করে তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে শরিফুল ইসলাম কৌশলে পালিয়ে যান।

এই ঘটনায় ওই শিক্ষিকা বাদী হয়ে প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামকে একমাত্র আসামি করে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ২০১৬ সালের ১ অক্টোবর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। দীর্ঘ শুনানির পর আদালত মঙ্গলবার এই রায় ঘোষণা করেন।

জুমবাংলানিউজ/এসওআর