খেলাধুলা

‘কোনো আঘাত দিয়ে থাকলে কষ্ট নেবেন না’

ফাইল ছবি

স্পোর্টস ডেস্ক : ইনজুরিই যেনো এখন ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদের নিত্যসঙ্গী। এক ইনজুরি থেকে সেরে ওঠার পর নতুন করে বাঁধান আরেকটি। কিংবা কখনও আততায়ী হয়ে ফিরে আসে পুরনো চোটই।

সবকিছু মিলিয়ে অনেকদিন ধরে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে নিয়মিত নন পেসার তাসকিন আহমেদ। তবে এই দুঃসময় থেকে পরিত্রাণ পেতে চান দেশের অন্যতম সেরা পেসার। চোট সংক্রান্ত সমস্যা কাটিয়ে শীঘ্রই জাতীয় দলের হয়ে মাঠে ফিরতে চান তিনি।

তবে তাসকিনের চোটের জন্য অনেকেই আঙুল তুলে থাকেন তার অসচেতনতার দিকে। তবে এমনটা মনে করেন না তাসকিন। বরং তিনি ফিট হয়ে ফিরে খেলার মাঝেই থাকতে চান। ক্রিকেটকে তার ‘নেশা’ ও ‘পেশা’ আখ্যা দিয়ে তাসকিন বলেন, ‘অসচেতনতার জন্য বারবার চোটে পড়েছি  এটা একদম ভুল কথা। একজন ক্রিকেটার হিসেবে চাই যেখানে সুযোগ পাই সুস্থ থেকে খেলতে। দিন শেষে আমার নেশা-পেশা সবই খেলা।’

চোটে পড়ে ঘরে বসে থাকা যেন দুঃসহ তাসকিনের জন্য। নিজেকে তাই তার মনে হয় দুর্ভাগা। জাতীয় দলের ফেরার তাড়না জানিয়ে বলেন, ‘চোটে পড়ে ঘরে বসে থাকতে কখনোই ভালো লাগে না। বাংলাদেশের হয়ে খেলাটা সব সময়ই স্বপ্ন আর শান্তির বিষয়। নিজেকে দুর্ভাগাই মনে হচ্ছে।’

তাসকিনের চাওয়া, দ্রুত মাঠে ফিরবেন তিনি। এরপর খেলবেন বাংলাদেশের জার্সি গায়ে, আবারও বল হাতে ছুটবেন ২২ গজে। গত বিশ্বকাপের মত আগামী বছর অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপে খেলারও ইচ্ছা তার। তাসকিনের ভাষ্য, ‘আমি চাই দ্রুত ফিরতে। দেশের হয়ে খেলতে হবে। সামনে অনেক বড় বড় সিরিজ টুর্নামেন্ট আসছে। সামনে বিশ্বকাপ আসছে। আমার স্বপ্ন গতবারের মতো এই বিশ্বকাপেও খেলা।’

তাসকিন আরও বলেন, ‘শুধু ফিট হলে হবে না, ভালো খেলে দলে জায়গা করে নিতে হবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ, বিপিএল, নিউজিল্যান্ড সফরে চেষ্টা করব দলে জায়গা পেতে। দলে জায়গা পাওয়ার ব্যাপারটা আমার হাতে নেই। আমি চেষ্টা করব নিজের সেরাটা দিতে।’

পরিশেষে ক্রিকেটে ফেরার জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন তাসকিন। তিনি বলেন, ‘যদি কোনো আঘাত দিয়ে থাকি কারও মনে, কষ্ট নেবেন না। দোয়া করবেন আমি যেন আগের মতো দেশের হয়ে খেলতে পারি।’

জুমবাংলানিউজ/এসএস