ক্যাম্পাস জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ

কুবিতে ‘শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত ও স্বীকৃতি’ শীর্ষক কর্মশালা

কুবি প্রতিনিধি: কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) আইকিউএসি’র আয়োজনে ‘শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত ও স্বীকৃতি’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (৩০ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে সকাল ১০টায় দিনব্যাপী এই কর্মশালা শুরু হয়।

কর্মশালার উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এমরান কবির চৌধুরী। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসির পরিচালক অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দ্র দেবের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউজিসির এসপিকিউএ’র পরিচালক ড. সুলতান মাহমুদ ভূঁইয়া; বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের।

উদ্বোধনী বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসির সকল যায়গায় অনলাইন সিস্টেম চালু হয়েছে, আমাদেরও সেই সক্ষমতায় যেতে হবে। ইউজিসি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সাথে আমাদের প্রতিনিয়ত যোগাযোগ আছে। আমরা সকলে মিলে বিশ্ববিদ্যালয়কে আরও অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।’

দিনব্যাপী কর্মশালায় ইউজিসি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক উচ্চশিক্ষার গুণগত মান উত্তরোত্তর বৃদ্ধি করতে দিকনির্দেশনা প্রদান করেন ইউজিসির এসপিকিউএ’র পরিচালক ড. সুলতান মাহমুদ ভূঁইয়া।

তিনি বলেন, ‘শিক্ষার গুণগত মান বজায় রাখাটা এখন সবচাইতে বড় চ্যালেঞ্জ। এর জন্য শিক্ষকদের মানোন্নয়ন জরুরি। সামাজিকভাবে শিক্ষকদের মর্যাদা ও সম্মান নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ। এর জন্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করতে হবে এবং শিক্ষকদের গবেষণায় শিক্ষকদের আরও বেশি আগ্রহী হতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে এই পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নের কোনো বিকল্প নেই। ইউজিসি এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়নে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।’

কর্মশালায় উচ্চশিক্ষায় বাংলাদেশের টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট, লক্ষ্যমাত্রা ও সূচকসমূহ নিয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা করেন ড. সুলতান মাহমুদ ভূঁইয়া। টেকসই উন্নয়নে (এসডিজি) ১৭টি অভীষ্টের ৪ নং লক্ষ্যে কোয়ালিটি এডুকেশনের কথা বলা হয়েছে যাতে আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে সকলের জন্য অন্তর্ভুক্তিমূলক ও সমতাভিত্তিক গুণগত শিক্ষা নিশ্চিতকরণ এবং জীবনব্যাপী শিক্ষালাভের সুযোগ সৃষ্টি করতে সকলকে সচেষ্ট হতে হবে জানান তিনি।

কর্মশালায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক ড. বনানী বিশ্বাস, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় সভাপতি, প্রশাসনিক দপ্তর প্রধান, হল প্রাধ্যক্ষসহ বিভিন্ন উপদেষ্টাগণ।