আন্তর্জাতিক

কুকুর ভেবে কণ্ঠশিল্পীর ভাল্লুক ছানা পালন, অতঃপর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বাড়িতে ভাল্লুকের ছানা পালন করছিলেন মালয়েশিয়ার এক কণ্ঠশিল্পী। কিন্তু তিনি কুকুর ভেবে ওই ছানাকি বাড়িতে এনেছিলেন। কিন্তু ভাল্লুকছানাকে আটকে রাখার অভিযোগে গত সপ্তাহে ওই কণ্ঠশিল্পীকে আটক করেছে পুলিশ। তবে, জারিথ সোফিয়া ইয়াসিন নামে ওই কণ্ঠশিল্পীর জানিয়েছেন যে, তিনি জানতেন না সেটি ভাল্লুকছানা, কুকুর ভেবে বাসায় রেখেছিলেন।

সম্প্রতি এশিয়া ওয়ানের খবরে প্রকাশ, এক সাক্ষাৎকারে সোফিয়া জানিয়েছেন, সপ্তাহ দুয়েক আগে তিনি ভাল্লুকছানাটিকে রাস্তায় কুড়িয়ে পান। যত্নআত্তির মাধ্যমে সুস্থ করে তোলার জন্যই সেটিকে বাসায় নিয়ে গিয়েছিলেন।

আইনভঙ্গ করার ইচ্ছা নেই জানিয়ে রিয়েলিটি শো রকানোভার সাবেক এ প্রতিযোগী বলেন, আমি জানি, ভাল্লুকছানা পোষা যায় না। আমি শুধু এটাকে বাঁচাতে চেয়েছিলাম, বন্দি রাখার উদ্দেশ্য ছিল না।

২৭ বছর বয়সী এ কণ্ঠশিল্পী আদর করে ভাল্লুকছানাটির নাম রেখেছেন ব্রুনো। সুস্থ হলেই এটাকে চিড়িয়াখানায় পৌঁছে দিতেন বলেও জানান তিনি।

গত সপ্তাহে কুয়ালালামপুরে সোফিয়ার বাসায় অভিযান চালায় ওয়াইল্ড লাইফ অ্যান্ড ন্যাশনাল পার্কস পেনিনসুলার মালয়েশিয়া। ওই বাসার জানালা দিয়ে একটি ভাল্লুকছানা দেখতে পাওয়ার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর এ অভিযান চালানো হয়।

এ ব্যাপারে সোফিয়া বলেন, এটা সত্য যে, আমি হারি রায়ার বাড়ি গিয়েছিলাম। কিন্তু শাবকটিকে না খাইয়ে রাখিনি। তার জন্য খাবার রেখে গিয়েছিলাম।

ভিডিও প্রচারের পর এ কণ্ঠশিল্পীর বিরুদ্ধে অবৈধভাবে বন্যপ্রাণি বন্দি ও বিক্রির অভিযোগ তুলেছেন অনেকেই। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি। সোফিয়া বলেন, আমি গান গাই, সারাদিনই আমার কাজ থাকে। বন্যপ্রাণি বিক্রির সময় কই? আমি এসব করে জীবনধারণ করি না।

জুমবাংলানিউজ/এএসএমওআই