গাজীপুর ঢাকা বিভাগীয় সংবাদ

কালীগঞ্জে সন্তানের গলায় ছুড়ি ঠেকিয়ে স্বর্ণালঙ্কারসহ নগদ টাকা লুট

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর: গাজীপুরের কালীগঞ্জে সন্তানের গলায় ছুড়ি ঠেকিয়ে দুই বাড়িতে দস্যূতার খবর পাওয়া গেছে। এতে স্বর্ণালঙ্কার, নগদ টাকাসহ বেশ কিছু দামি জিনিসপত্র লুটে নিয়ে গেছে দস্যূরা। ঘটনা পর বৃহস্পতিবার সকালে কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুবকর মিয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের রায়েরদিয়া ও নগরভেলা গ্রামে পৃথক দু’টি ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছে কমপক্ষে ৩ জন।

আহতরা হলেন রায়েরদিয়া গ্রামের মতিউর রহমান (৩৪), নগরভেলা গ্রামের সৌরভ মিয়া (৩০) ও মায়া বেগম (৩২)। এদের মধ্যে মতিউর দস্যূদের চাইনিজ কুড়ালের কুপে মারাত্মকভাবে জখম হয়ে বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত মতিউরের বাবা আতিকুল্লাহ জানান, বুধবার দিবাগত আনুমানিক রাত ১টার দিকে ৩/৪ জনের মুখোশপড়া একটি সশস্ত্র দস্যূ দল বাড়ির কলাপসিপল গেইটের তালা কেটে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় তার নাতি ইস্কান্দার সরকার (৫) ও ১ মাসের নাতনি ইভার গলায় ছুড়ি ঠেকিয়ে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, ৩টি মোবাইল ফোন, ১টি ডিজিটাল ক্যামেরা লুট করে নিয়ে গেছে। এ সময় বাধা দেওয়ায় দস্যূরা তার ছেলেকে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে তিনি হাসপাতালে ছেলের চিকিৎসায় ব্যবস্থা থাকায় নগদ টাকা ও স্বর্ণলঙ্কারের পরিমান বলতে পারেননি।

অন্যদিকে দস্যূতার অপর ঘটনায় নগরভেলা গ্রামের আসাদুজ্জামান (৪০) জানান, বুধবার দিবাগত আনুমানিক রাত ২টার দিকে ৩/৪ জনের মুখোশপড়া একটি সশস্ত্র দস্যূ দল বাড়ির কলাপসিপল গেইটের তালা কেটে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় তার ভাতিজি জান্নাতের (৫) গলায় ছুড়ি ঠেকিয়ে নগদ ১ লাখ টাকা, ৭/৮ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৮টি মোবাইল ফোন লুট করে নিয়ে গেছে। এ সময় তার ডাক চিৎকারে পাশের ভাড়াটিয়া সৌরভ ও মায়া এগিয়ে আসলে তাদেরকে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে।

কালীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবুবকর মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে। ভূক্তভোগীদের থানায় এসে অভিযোগ দিতে বলেছি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।