আন্তর্জাতিক

কাতার সংকটের মাঝে পদত্যাগ করলেন কাতারে মার্কিন রাষ্ট্রদূত

প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সমালোচনা করে টুইট করার পরে পদত্যাগ করলেন কাতারে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত ডানা শেল স্মিথ। এফবিআইয়ের সাবেক পরিচালক জেমস কমিকে বরখাস্ত করার পর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প প্রশাসনের সমালোচনা করে টুইট করেছিলেন ডানা। এখন কাতারের বিরুদ্ধে উপসাগরীয় বেশ কয়েকটি দেশ কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার পর তিনি পদত্যাগ করলেন।

তবে কি কারণে তিনি পদত্যাগ করেছেন সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো ইঙ্গিত দেন নি। কাতার ইস্যুতে সৃষ্ট সঙ্কট নাকি ট্রাম্প প্রশাসন তাকে এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করেছে এর কিছুই বলেন নি ডানা।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুধু বলেছেন, সারাবিশ্বে কূটনীতিকরা যে ক্যারিয়ার ধরে রাখেন তাতে পর্যায়ক্রমিক পরিবর্তনের এটি একটি অংশ। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট। এতে বলা হয়, সম্প্রতি মুসলিম ব্রাদারহুড সহ ইসলামি গ্রুপগুলোকে আর্থিক সহায়তা দেয়ার অভিযোগে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, মিশর, মালদ্বীপ, সংযুক্ত আরব আমিরাত, লিবিয়া ও বাহরাইন। প্রাথমিকভাবে এ উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। পরে তিনি সবাইকে শান্ত হয়ে সঙ্কট সমাধানে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।

ওদিকে গত ৯ ই মে বরখাস্ত করা হয় জেমস কমিকে। এরপর ডানা স্মিথ টুইটে লিখেছেন, দেশ থেকে বিদেশে যেসব খবর আসছে তা ক্রমাগত জটিল শোনাচ্ছে। এটা জেনে আমি সারাদিন আমাদের গণতন্ত্র ও প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ে বিশ্লেষণ করবো। পরে আরেক টুইটে তিনি লিখেছেন, কূটনীতিকরা রাজনৈতিক ব্যবস্থা ব্যাখ্যা ও তার পক্ষ অবলম্বন করেন। কিন্তু দেশে পক্ষপাতিত্ব এত বেশি যে সেই কাজটি কঠিন হয়ে পড়ছে।

আরেক টুইটে তিনি লিখেছেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অর্থায়নে কাতার হলো একটি শক্তিশালী অংশীদার। আমরা আমাদের কাজ অব্যাহত রাখবো। উল্লেখ্য, ডানা শেল স্মিথতে দোহায় কূটনৈতিক মিশনের প্রধান হিসেবে ৩ বছর আগে নিযুক্ত করেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।



সর্বশেষ খবর