slider জাতীয়

কাকরাইল মসজিদে তাবলিগের দু’গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

কাকরাইলে মসজিদে দুই গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। তাবলিগ জামাতের দিল্লির মারকাজের মুরব্বি মাওলানা সা’দকে নিয়ে সৃষ্ট মতবিরোধের জের ধরে এই ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারি হয়।

রমনা থানার ওসি কাজী মঈনুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, তাবলীগ জামাতের বাংলাদেশের প্রধান কেন্দ্র কাকরাইল মসজিদ। এখানে তাদের একটি শুরা মিটিং ছিলো। মিটিংয়েদুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি ও ধস্তাধস্তিঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

তিনি বলেন,মসজিদে পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। আমি নিজে এখানে এসেছি। ঊর্ধ্বতন সদস্যদের সঙ্গে বসে সমঝোতার চেষ্টা করছি।

সুমন নামে তাবলীগের একজন জানান, তাবলীগ জামাতের সদস্য মাওলানা জুবায়ের এবং সুরা সদস্য ওয়াসিফুল ইসলামের গ্রুপের মধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেছে। জুবায়ের পাকিস্তান গিয়ে একটি জামাতে অংশ নিয়ে আহমেদ লাকশাহ নামের একজনের সঙ্গে দেখা করে। তিনি জুবায়েরের কাছে বাংলাদেশের তাবলীগ জামাতের সদস্যদের জন্য একটি বার্তা দিয়েছিলেন। তবে জুবায়ের বাংলাদেশে এসে সে বার্তা জানায়নি।

সূত্রটি জানায়, কিছু দিন আগে মাওলানা জুবায়ের নামে তাবলিগ জামাতের এক সদস্য পাকিস্তানে একটি জামাতে অংশ নেন। সেখানে তাবলিগের আরেক মুরব্বী আহমেদ লাকশাহর সঙ্গে দেখা করেন। আহমেদ লাকশাহ বাংলাদেশের তাবলিগ জামাতের জন্য জুবায়েরের কাছে একটি বার্তা দিয়েছিলেন। কিন্তু মাওলানা জুবায়ের সে বার্তা বাংলাদেশি মুরব্বিদের জানাননি। পরে সুরা সদস্যরা অন্য মাধ্যমে সে বার্তাটি অবগত হন।