খেলা-ধুলা

কর ফাঁকির অভিযোগ থেকে মুক্তি চান নেইমার

তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে আদালতে লড়াইটা চালিয়ে আসছেন। সেই লড়াইয়ে এরই মধ্যে কিছু ‘জয়’ও পেয়েছেন নেইমার। তবে আংশিক নয়, কর ফাঁকির অভিযোগ থেকে এবার পুরোপুরিই মুক্তি পেতে চাইছেন বার্সেলোনা ছেড়ে রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফি’তে পিএসজিতে নাম লেখানো ব্রাজিলীয় ফরোয়ার্ড। সেজন্য তিনি জরিমানা দিতেও প্রস্তুত। শুধু প্রস্তুত বললে ভুল হবে। কর ফাঁকির অভিযোগ থেকে মুক্তি পেতে নেইমার শুক্রবার ব্রাজিলের কর কর্তৃপক্ষকে ২৫ লাখ ডলার জরিমানা দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন। নেইমারের জরিমানা দেয়ার প্রস্তাবের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার আইনজীবী মার্কোস নেদের।

এখন প্রশ্ন হল, ব্রাজিলের কর কর্তৃপক্ষ কী নেইমারের এই প্রস্তাবে রাজি হবে? মামলা তুলে নিয়ে ঝামেলা মিটিয়ে ফেলবে তারা? ব্রাজিল কর কর্তৃপক্ষের দাবি করা অর্থের পরিমাণ যে নেইমারের জরিমানার প্রস্তাবের অংকের চেয়ে অনেক গুণ বেশি- পাঁচ কোটি ৯৪ লাখ ডলার! ২০১১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সময়ের মধ্যে নেইমার ব্রাজিল কর কর্তৃপক্ষকে বিশাল অংকের কর ফাঁকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করে তারা।

নেইমার ঠিক কত ডলার কর ফাঁকি দিয়েছেন সেটা উল্লেখ করা হয়নি। তবে সুদ ও জরিমানা মিলিয়ে বকেয়া করের সেই অংকটা এখন পাঁচ কোটি ৯৪ লাখে দাঁড়িয়েছে। এই অর্থ উসুল করতে ২০১৫ সালে নেইমারের পাঁচ কোটি ৫৭ লাখ ডলারের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে ব্রাজিল কর কর্তৃপক্ষ। আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে বাজেয়াপ্ত করা সেই সম্পত্তির কিছুটা ছুটিয়েও এনেছেন নেইমার।

কিন্তু এবার পুরোপুরিই মুক্তি চান ঝামেলা থেকে। ঝামেলার বোঝা ঘাড় থেকে নামিয়ে পিএসজির ক্যারিয়ার শুরু করতে চান নির্ভার হয়ে। সেই আশায় পাঠিয়েছেন জরিমানার প্রস্তাব। জরিমানার প্রস্তাব পাঠানোর বিষয়ে তার আইনজীবী বলেছেন, ‘তিন বছরের বেশি সময় ধরে প্রক্রিয়াটা চলে আসছে। কিন্তু তাদের (ব্রাজিল কর কর্তৃপক্ষ) দাবি করা অংকের ব্যাপারে তিনি (নেইমার) একমত নন।

Advertisements