খেলাধুলা

এমন বিব্রতকর রেকর্ড! শূন্য রানে নেই ৬ উইকেট!

মহা অনিশ্চিয়তার এক খেলার নাম ক্রিকেট। তাই বলে এমন! ২২ গজের ক্রিকেটে এমন ভয়াবহ বিপর্যয়ের কথা কখন শুনেছেন? কিন্তু এমন এক কাণ্ডই ঘটেছে ভারতে। ইন্দোরের হোলকার স্টেডিয়ামে লিগে এমন বিব্রতকর রেকর্ড গড়ে ভারতের মধ্যপ্রদেশের দলটি।

জয়ের জন্য অন্ধ্রপ্রদেশ ঝুলিয়ে দেওয়া ৩৪৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মধ্যপ্রদেশ দলগত ৬ রানের মাথায় ওপেনার অজয় রোহেরার (৬) উইকেট হারায়। ১৫ রানের মাথায় সাজঘরে ফেরেন রজত পতিদার (০)। ১৯ রানের মাথায় আউট হন নমন ওঝা (১)। একসময় ৩ উইকেটে ৩৫ রানে দাঁড়িয়ে থাকা এমপির দ্বিতীয় ইনিংস আর্যমান বিড়লার উইকেট হারানোর পরেই অবিশ্বাস্যভাবে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে।

৩৫ রানের মাথায় মধ্যপ্রদেশের চতুর্থ উইকেটের পতন হয় বিড়লা ফিরে যাওয়ায়। পরের ২৩ বলের মধ্যে এমপি’র গোটা দল সাজঘরে ফেরে একরানও যোগ না করে। অর্থাৎ শূন্য রানে মধ্যপ্রদেশ তাদের শেষ ছ’টি উইকেট হারিয়ে বসে। একজন ব্যাটসম্যান ইজুরিতে থাকায় এমপি’র দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয় ৩৫ রানে। ফলে অন্ধ্রপ্রদেশ ম্যাচ জেতে ৩০৭ রানে।

এদিন মধ্যপ্রদেশের হয়ে সব থেকে বেশি ১৬ রান করেন যশ দুবে। এছাড়া দু’অঙ্কের রান শুধু বিড়লার ১২। ৬ জন ব্যাটসম্যান শূন্য রানে আউট হন। অর্থাৎ ইনজুরিতে থাকা ব্যাটসম্যানকে মিলিয়ে মোট সাতজন ব্যাটসম্যানের দলের ইনিংসে কোনও অবদান নেই।

এমন চূড়ান্ত ব্যাটিং বিপর্যয়েও অবশ্য রঞ্জি ট্রফিতে সব থেকে কম রানে অলআউট হওয়ার লজ্জার রেকর্ড গড়তে হয়নি মধ্যপ্রদেশকে। সেই রেকর্ড রয়েছে হায়দরাবাদের নামে। ২০১০-১১ মৌসুমে রাজস্থানের কাছে ২১ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল তারা। রঞ্জির চলতি রাউন্ডে রাজস্থানের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে ৩৫ রানে অলআউট হয় ত্রিপুরাও।

জুমবাংলানিউজ/ জিএলজি