আন্তর্জাতিক

এবার মূত্র ব্যাংক বানাতে যাচ্ছে ভারত সরকার

আরও একটি ব্যাংক বাড়তে পারে ভারতে। আর সেটা হচ্ছে ইউরিন বা মূত্র ব্যাংক। ভারতে চাষবাসের কাজে ইউরিয়ার চাহিদা বিপুল। সেই চাহিদা মেটাতে বিদেশ থেকে ইউরিয়া আমদানি করতে হয় প্রচুর পরিমাণে। সেই আমদানি কমাতে মানুষের মূত্র জমিয়েই ইউরিন ব্যাংক বানানো হবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী নিতিন গডকড়ী। তবে সবটাই এখনও সরকারি স্তরে ভাবনাচিন্তার পর্যায়ে রয়েছে।

সোমবার টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নিতিন গডকড়ী এ কথা বলেছেন।

গডকড়ীর বক্তব্য, অব্যবহৃত রেচন পদার্থ দিয়ে যদি দেশের ভিতরেই বিপুল পরিমাণে ইউরিয়া তৈরি করা সম্ভব হয়, তা হলে ভারতের খরচও অনেকটাই কমবে। আর কৃষকেরা আরও কম দামে ইউরিয়া কিনে তা সার হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

গডকড়ী বলেন, ‘মানুষের মূত্রে প্রচুর পরিমাণে নাইট্রোজেন রয়েছে। যার কোনও সদ্ব্যবহার হয় না। আমরা ইতিমধ্যেই ফসফরাস এবং পটাশিয়ামের জৈব বিকল্প পেয়ে গিয়েছি। এ বার নাইট্রোজেনকে কাজে লাগিয়ে ইউরিয়া তৈরি করতে পারলে গাছের বৃদ্ধির জন্য আরও ভালো সার তৈরি করতে পারব।’ তাই প্রতিটা তহশিলে একটা করে ইউরিন ব্যাংক গড়ে তুলতে চান গডকড়ী।

ইউরিন ব্যাংকের জন্য তো মানুষের মূত্র লাগবে প্রচুর পরিমাণে। অত মূত্রের জোগান সম্ভব হবে কীভাবে?

তার জন্য কৃষকদের সাহায্য চেয়েছেন গডকড়ী। তিনি কৃষকদের বলেছেন ১০ লিটারের একটি প্লাস্টিক পাত্রে মূত্র সংগ্রহ করে নিকটবর্তী তহশিল কেন্দ্রে নিয়ে যেতে। সেই কাজে উৎসাহ বাড়াতে প্রতি লিটার মূত্র-পিছু কৃষকদের ১ টাকা করে দেবে সরকার। মূত্র রাখার জন্য নির্দিষ্ট পাত্রও সরকারের তরফ থেকে কৃষকদের বিনামূল্যে দেয়া হবে।

তবে সব কিছুর আগে সুইডিশ বিজ্ঞানীদের পরামর্শ নিয়ে নাগপুরের ধাপেওয়ারা গ্রামের পরীক্ষাগারে ইউরিয়া বানানো হবে। ঠিকঠাক থাকলে তবেই এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হবে, জানিয়েছেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা