Default বিনোদন

এবার বিয়ের কাবিন নামা নিয়ে মুখ খুললেন অপু, যা বললেন

অবশেষে অপু বিশ্বাস মুখ খুলতে শুরু করেছেন। গতকাল সারাদিন সাংবাদিকদের সাথে কথা না বললেও আজ তাকে ফোনে পাওয়া গেল। বললেন ডিভোর্সের প্রসঙ্গ নিয়ে নানা কথা।

শাকিব খানের পাঠানো ডিভোর্স নোটিস এখনো হাতে না পেলেও অপু বিশ্বাস বলেন, ডিভোর্স নোটিসটি পাবার পরে আমি একজন আইনজীবির পরামর্শ নিয়ে একটি সংবাদ সম্মেলন করব। সেখানে সাংবাদিকদের নিজের কিছু কথা জানাতে চাই।

এদিকে শাকিব-অপুর বিয়ের কাবিনে দেনমোহর বাবদ শুধু ৭ লাখ টাকা উল্লেখ থাকলেও অপু বলেন, আমাদের বিয়ের কাবিননামায় টাকার অংক(দেনমোহর বাবদ) উল্লেখ আছে ১ কোটি ৭ লাখ। এটাকে কেউ যেন বিভ্রান্ত না করে।

সবশেষে অপু বলেন, শাকিব এভাবে ডিভোর্স নোটিস বাসাতে পাঠিয়ে জলঘোলা না করে নিজে সুন্দর ভাবে আমার সঙ্গে কথা বলে সংবাদ সম্মেলন করে সবাইকে জানিয়ে দিতে পারত।

অপু বিশ্বাস আরো বলেন, জয়ের জন্ম নিয়েই শাকিবের সঙ্গে তার সম্পর্কের অবনতি ঘটে। সন্তানের জন্ম হোক তা শাকিব চায়নি। জয়ের জন্মের আগে শাকিবের আপত্তির মুখে তিনবার গর্ভপাত করাতে হয়েছে তাকে। শাকিবের কারণে আমি আমার নাম অপু ইসলাম খান বলে প্রকাশ করতে পারিনি।

প্রসঙ্গত, শাকিব খানের পক্ষে আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের অফিস থেকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন মেয়র কার্যালয়, অপু বিশ্বাসের ঢাকার নিকেতনের বাসা এবং বগুড়ার ঠিকানায় ডিভোর্সের নোটিস পাঠানো হয়েছে। তবে এই ডিভোর্স কার্যকর হবে নোটিস পাঠানোর তারিখ থেকে তিন মাস পর।

প্রসঙ্গত, অপু বিশ্বাস জানিয়েছিলেন ২০০৮ সালের ১৮ই এপ্রিল পারিবারিক ভাবে শাকিবের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে। বিয়ের সময় নিজের নাম পাল্টে তিনি অপু ইসলাম রাখেন।

কিন্তু শাকিব খানের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের কথা ভেবে বিয়ের কথা গোপন রাখেন তারা। তবে চলতি বছরের এপ্রিলে হঠাৎ করেই নিজের বিয়ে ও একটি সন্তান থাকার কথা জানান অপু।