বিনোদন

এবার এই নায়িকাদের নিয়ে বোমা ফাটালেন সেই নাসরিন

নাসরিন বাংলা চলচ্চিত্র অঙ্গনের বেশ সুপরিচিত একটি নাম। মূল চরিত্রে অভিনয় করতে না পারলেও নিজের জায়গা থেকেই নিজেকে বেশ জনপ্রিয় করে তুলেছেন এই অভিনেত্রী। তবে চলচ্চিত্রে মূল চরিত্রে অভিনয় না করতে পারা নিয়ে বেশ ক্ষোভ রয়েছে এই শিল্পীর মধ্যে।

সম্প্রতি দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টকশো ‘সেন্স অফ হিউমার’-এ মূল চরিত্রে অভিনয় করতে না পারা নিয়ে বেশ খোলামেলা কথা বলেছেন নাসরিন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন অভিনেতা শারিয়ার নাদিম জয়। দীর্ঘ দিনের ক্যারিয়ারে চলচ্চিত্র থেকে আপনার প্রাপ্তি কি জয়ের এমন প্রশ্নের জবাবে নাসরিন বলেন,‘আমি মনে করি অনেক কিছুই পেয়েছি। আবার মনে করি কিছুই পায়নি। আমার এই না পাওয়ার পেছনে অনেক বড় বড় নায়িকাও দায়ী।’

মৌসুমি,শাবনুরের কথা উল্লেখ করে এই অভিনেত্রী বলেন,‘তাদের সাথে আমি থাকলে হয়তো অনেক সময় আমার ক্লোজ আপ থাকতো না। শুধু তাই নয়, অনেক সময় তারা বলতো লাইট অন্যরকম করে দিতে। এসব নিয়ে অনেক কষ্ট পেয়েছি। মেকাপ রুমে অনেক কেঁদেছি।

নায়িকা পূর্ণিমার প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন,‘পূর্ণিমা তৈরি হয়েছে শুধু আমার জন্য। নায়িকা পূর্ণিমা অনেক সময়ই বলেছে আমি থাকলে সে কাজ করবে না।’
পূর্ণিমা এমন না করলে কি আপনি আজকে পূর্ণিমার জায়গায় থাকতেন উপস্থাপকের এমন প্রশ্নের জবাবে বেশ আত্মবিশ্বাস নিয়েই নাসরিন বলেন,‘হুম অবশ্যই হতাম। শুধু তাই নয়,আমাকে রাজ্জাক ভাই বাপ্পার সাথে নায়িকাও বানাতে চেয়েছিলেন।’

তিনি আরো বলেন,‘কাজল নামে এক নায়িকা ছিল। যে কিনা রাজ্জাক ভাই’র ছবিতে বাপ্পার নায়িকা ছিলো। শুটিং শুরুর আগে তার বাবা মারা যায় তখন আমাকে নায়িকা হতে বলে কিন্তু আমি হয়নি। কারণ তখন ঐ মেয়েটার বাবা মারা গেছে। এমনিতেই মন ভালো ছিলো না,এর মাঝে যদি এসে দেখত যে কাজটাও ছুটে গেছে তাহলে তো আরো কষ্ট পেতো। এমনও অনেক নায়িকা আছে যারা নাচ পারতো না। আমি তাদেরকে নাচ শিখিয়ে পরে শর্ট দিতে পাঠিয়েছি।’

সবাইকে বিভিন্ন ভাবে সহযোগীতার বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন,‘অন্যান্য নায়িকাদের অনেকে ছিলো। কিন্তু আমার কেউ ছিলো না।’

প্রয়াত দিলদারের নায়িকা হিসেবে সবাই চিনতো আর এর কারণে আমাকে অনেকে কাজে নিতো না উল্লেখ করে এই চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বলেন,‘দিলদার ভাইয়ের সাথে আমার অনেক কাজ করা হয়েছে। যার ফলে অনেকেই আমাকে দিলদারের নায়িকা হিসেবে ডাকতো। যেটা আমার ক্যারিয়ারের জন্য বাজে ছিলো। কেননা দিলদারের নায়িকা হিসেবে ডাকার কারণে অনেক ডিরেক্টর আমাকে কাজ দিতো না। শুধু তাই নয়, এখনো আমি রাস্তায় বের হলে মানুষ বলে ঐ যে দিলদারের নায়িকা। আমি কিন্তু দিলদারের জন্য পরিচিত না, জনপ্রিয় হই নি। বরং আমার সাথে জুটি বেঁধে দিলদার ভাইয়ের লাভ হয়েছে। মোট কথা সবাই আমাকে ব্যবহার করেছে।’