ফেসবুক বিনোদন

এতো সুন্দর একটা মানুষ কিভাবে এতো ভয়ঙ্কর হতে পারে?: আসিফ

জুমবাংলা ডেস্ক: সিনেমা জগতে যে মানুষটাকে আমরা ভয়ঙ্কর চরিত্রে দেখি বাস্তব জীবনে  তাদের বেশিরভাগকে দেখা গিয়েছে এর সম্পূর্ণ বিপরীত। অনেক ভিলেনকে দেখেছি বাস্তব জীবনে অনেক ভাল মানুষ অথচ সিনেমার চরিত্রের তাকে দেখা যায় সবচেয়ে নিকৃষ্ট চরিত্রের অধিকারী।

তাই সিনেমার ভিলেনরা বাস্তব জীবনে যতই ভাল মানুষ হোক না কেন দর্শকরা সামনাসামনি তাদেরকে দেখলে ভয় পায়। সিনেমার ভিলেনদের আমরা অবচেতন মনে তাদেরকে বাস্তব জীবনে ভিলেন মনে করি।

যাইহোক বাংলা চলচ্চিত্র জগৎ এর  এক উজ্জ্বল নক্ষত্র খলনায়ক খলিলুল্লাহর কথা আপনার নিশ্চয় মনে আছে? সিনেমা জগৎ এ  তিনি ভয়ঙ্কর মানুষ হিসেবে পরিচিত হলেও  বাস্তব জীবনে তিনি ছিলেন এর সম্পূর্ণ  ভিন্ন চরিত্রের অধিকারী। আজ এই সহান অভিনেতার মৃত্যু বার্ষিকী। জুমবাংলা উনার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কমনা করছে।

এদিকে একটু আগে সংগীত শিল্পী আসিফ আকবর এই অভিনেতাকে স্মরণ করে তাঁর ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে পোস্ট দিতে গিয়ে লিখেছেন, কুমিল্লা জিলা স্কুলে পড়াকালীন সময়ে ভদ্রলোককে সরাসরি দেখেছিলাম। আরো আগে উনাকে দেখেছি বাংলা ছবির ভিলেন হিসেবে। তিনি মরহুম খলিলুল্লাহ খান (স্যার)। উনাকে দেখার পর অবাক হয়েছি, এতো সুন্দর একটা মানুষ কিভাবে এতো ভয়ঙ্কর হতে পারে !

“টাকা আমার চাই, নইলে জমি”- মিয়ার ব্যাটা’র অমর এই ডায়ালগটি মানুষের মুখে মুখে। বাংলা সিনেমার এই মহা ভিলেন ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন নায়ক হিসেবে। উনার সন্তান মুসা খান (ভাই) আমার সিরিয়র বন্ধু। রাঙ্গামাটি ওয়াটার ফ্রন্ট,গাজীপুর এর তিনি ডিরেক্টর। কাকতালীয়ভাবে উনার পরিবারের সাথে আমার একটা সম্পর্ক হয়ে গেছে ।

আজ এই জাত বনেদী অভিনেতা খলিলুল্লাহ খান স্যারের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। উনার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কমনা করছি। এতোটুকু সম্মান দেয়া ছাড়া আমার আর কিছুই করার নেই। সবার জন্য ভালবাসা অবিরাম। ছবিতে মুসা ভাইয়ের সাথে আমি।স্ক্রিণশর্টটি আসিফের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজ থেকে নেওয়া।