ঈদ চলে গেলেও ‘বড় ছেলে’ নিয়ে আলোচনা কমেনি। এক এক করে দিন পার হচ্ছে আর নাটকটির প্রসার হচ্ছে। নাটকের গল্পটি অনেকের নিজের বাস্তব জীবনের সাথে মিলে যাওয়ায় বেশি দর্শক টানতে সক্ষম হয়েছে। তরুণ নির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ানের পরিচালনায় নাটকটিতে অপূর্ব-মেহজাবিনের অভিনয়ও সকলের মনে দাগ কেটেছে। সাক্ষাতে ছিলেন নিয়াজ শুভ-

কেমন আছেন?

মেহজাবিনঃ ভালো।

ঈদ কেমন কাটলো?

মেহজাবিনঃ ভালোই। পরিবারের সঙ্গে বেশ আনন্দেই কেটেছে।

ঈদের পর নতুন কোন কাজ শুরু করেছেন?

মেহজাবিনঃ না এখনো কাজ শুরু করিনি।

হাতে নতুন কি কাজ আছে?

মেহজাবিনঃ লাক্সের একটি বিজ্ঞাপনে কাজ করেছি। পাশাপাশি নাটকের স্ক্রিপ্টগুলো পড়ছি। গল্প পছন্দ হলে নাটকের কাজ শুরু করবো।

‘রিয়া’ চরিত্রটি নিয়ে কিছু বলুন…

মেহজাবিনঃ খুবই সাধারণ একটি চরিত্র। বলতে গেলে প্রত্যেকটা মেয়ে জীবনে একজনকে মন থেকে পছন্দ করে। সে একজনকে পছন্দ করে, হয়তো তার বাবা-মা সেটি মেনে নেয় না। তাদের অনেককেই এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়। তেমনই একটি আনলাকি মেয়ের চরিত্র রিয়া। যেখানে সে পরিবারকে নিজের ভালোবাসার কথা বলতেও ভয় পায়। সে যে পরিবারে থাকে সেখানে বাবাই সকল সিদ্ধান্ত নেন।

‘বড় ছেলে’ নাটকে আপনার চরিত্রটি কিভাবে মূল্যায়ন করবেন?

মেহজাবিনঃ আমার যে চরিত্রটি ২০১৭ সালে এমন মেয়ে দেখা যায় না। আবার একেবারেই যে এমন মেয়ে নেই তা কিন্তু নয়। বলা যায়, এই গল্পের মেয়েটা এক হাজারের মধ্যে কিংবা এক লাখে একজন।

‘বড় ছেলে’র বউ হতে পারলেন না, আফসোস হচ্ছে?

মেহজাবিনঃ (হেসে) আমি বিশ্বাস করি, যেটা হয় ভালোর জন্যই হয়। এখন হয়তো বড় ছেলের বউ হই নাই, সামনে হতেও পারি। অথবা এমন হতে পারে কাজের জন্য বউ না হওয়াটাই ভালো ছিলো।

এবার ঈদে ‘বড় ছেলে’ ও ‘ব্যাচ ২৭’ দুটোতেই আরিয়ানের পরিচালনায় কাজ করেছেন। তার সাথে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন?

মেহজাবিনঃ আরিয়ান ভাইয়ের সাথে এবারই আমার প্রথম কাজ। ‘ব্যাচ ২৭’ আগে করা হয়েছিলো ‘বড় ছেলে’ পরে করেছি। দর্শকরা ‘ব্যাচ ২৭’ এর চেয়ে ‘বড় ছেলে’টি বেশি পছন্দ করেছে। তার সাথে কাজের অভিজ্ঞতা বেশ ভালো। আশা করি, সামনে একসঙ্গে আরো কাজ করা হবে।

বর্তমানে সেরা জুটি অপূর্ব-মেহজাবিন। আপনাদের জুটির কেমিস্ট্রি জানতে চাই…

মেহজাবিনঃ অপূর্ব ভাইয়ের সাথে অনেক কাজই করা হয়েছে। একটা জুটি তখনই সফলতা পায় যখন দর্শকরা তাদের পছন্দ করেন। এখন দর্শকরা যদি মনে করে আমরা সেরা জুটি, তাহলে তাদের দর্শনকে আমি সম্মান জানাই।

‘বড় ছেলে’র জনপ্রিয়তার পর আপনার অভিনীত অন্য নাটকগুলোতে কেমন সাড়া পেয়েছেন?

মেহজাবিনঃ ‘বড় ছেলে’র নাটকটি প্রত্যাশার চেয়েও বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এই নাটকের জন্য যে অন্য নাটকগুলো ঢাকা পড়ে গেছে তা কিন্তু নয়। বরং আমার ভক্তরা খুঁজে নিয়েছে আমার অভিনীত আর কি কি নাটক আছে। পরিচিতজনদের অনেকেই ফোন দিয়ে জানতে চেয়েছে আমার অভিনীত আর কোন নাটক আছে।

‘বড় ছেলে’ নাটকটির শুটিংয়ের সময়ের কোন বিশেষ মুহূর্ত…

মেহজাবিনঃ খুবই সাদামাটা গল্প। লাস্টের সিকুয়্যান্স বাদে তেমন কোন মেমরি নেই। সেখানে আমরা আসলেই অনেক কেঁদেছিলাম। ওই সিনটি শেষ করে স্বাভাবিক হতে আমারই ৫-১০ মিনিট সময় লেগেছিলো। তখনই ভেবেছিলাম, নাটকটি যদি কেউ মনে রাখে এই সিকুয়্যান্সের জন্যই মনে রাখবে।

চলচ্চিত্রে আসার ইচ্ছা কতটুকু?

মেহজাবিনঃ ইচ্ছা বলতে আসলে কিছু না। এটা যদি হওয়ার থাকে হয়ে যাবে। ব্যাটে-বলে মিললে অবশ্যই কাজ করবো। তবে আপাতত সেসব নিয়ে ভাবছি না। সময় হলে দেখা যাবে।

বিয়ে করছেন কবে?

মেহজাবিনঃ এই মুহূর্তে বিয়ে নিয়েও ভাবনা নেই। ৩-৪ বছর পর বিয়ে করবো।

এতক্ষণ সময় দেয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

মেহজাবিনঃ আপনাকেও ধন্যবাদ। বিডিমর্নিং