বিনোদন

এই বছর বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন কণ্ঠশিল্পী কনা

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী দিলশাদ নাহার কনা। সংগীত জগতে এরই মধ্যে পার করেছেন দেড় যুগেরও বেশি। এই সময়ে বেশ কিছু জনপ্রিয় গান তিনি উপহার দিয়েছেন। প্রথম অ্যালবাম থেকে ‘জ্যামিতিক ভালোবাসা’ গানটি জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

চলচ্চিত্র এবং অ্যালবামে একটি শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন তিনি। এখন নিয়মিতই তার দিন কাটে গান ও জিঙ্গেল রেকর্ডিং, স্টেজ শো, শুটিংয়ের মধ্যে দিয়ে। গেল ঈদেও উল্লেখযোগ্যসংখ্যক গান প্রকাশ হয়েছে কনার। এর মধ্যে ছিল সিএমভি থেকে প্রকাশিত ‘খামোখাই ভালোবাসি’ শীর্ষক একটি গান, যার ভিডিও তৈরি হয়েছে ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে।

অন্যদিকে ধ্রুব মিউজিক স্টেশন থেকে প্রকাশ হয়েছে কনা ও জুয়েল মোর্শেদের দ্বৈত গান ‘গার্ডেন গার্ডেন’। এ গানটি এরই মধ্যে বেশ ভালো শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে। সব মিলিয়ে ঈদে নতুন গানগুলো সাড়া কেমন পেলেন? কনা বলেন, অনেক বেশি সাড়া পেয়েছি। কারণ দুটি বিগ বাজেটের মিউজিক ভিডিও প্রকাশ পেয়েছিল এই ঈদে। এর মধ্যে ‘খামোখাই ভালোবাসি’ গানটি বেশ পছন্দ করছেন শ্রোতারা ধীরে ধীরে।

অন্যদিকে ‘গার্ডেন গার্ডেন’ গানটির সাড়াও ভালো। একটি বিয়েকে কেন্দ্র করে এর মিউজিক ভিডিও করা হয়েছে। গানটিতে নেচেছিও আমি। সব মিলিয়ে গান দুটির সাড়া প্রত্যাশার চাইতেও বেশি। এদিকে গত বছর কনার দুটি গান বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। এর মধ্যে একটি ছিল ‘রেশমী চুড়ি’। এ গানটি ইউটিউবে এরই মধ্যে প্রায় ৯০ লাখ দর্শক উপভোগ করেছেন।

অন্যদিকে কনার আরেকটি সিনেমার গান দেড় কোটি ভিউর মাইলফলক অতিক্রম করেছে। ‘বসগিরি’ ছবির এ গানের নাম ‘দিল দিল দিল’। এ গানে তার সহশিল্পী ছিলেন ইমরান। বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে? কনা বলেন, ব্যস্ততা স্টেজ, অ্যালবাম, সিনেমার গান, জিঙ্গেল নিয়ে। প্রতিদিনই এসব বিষয় নিয়ে ব্যস্ততা যায় আমার। নতুন কোনো পরিকল্পনা আছে কি? কনা বলেন, এখন থেকে গান ভিডিওসহকারেই প্রকাশ করবো বলে ঠিক করেছি। আসলে পূর্ণ অ্যালবাম করে লাভ নেই। সব গানের প্রচারণা একইভাবে করা সম্ভব না। তাই একটি করে গানই প্রকাশ করবো ভিডিও করে। এই পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ চলছে। আসছে কোরবানির ঈদেও একটি গান ভিডিওসহ প্রকাশের ইচ্ছে রয়েছে। সিনেমার নতুন গানের কি খবর?

কনা বলেন, সিনেমার গানতো নিয়মিতই চলছে। প্লেব্যাক করতে আমার ভালো লাগে। একটা চ্যালেঞ্জ থাকে, যেহেতু গল্প ও চরিত্র অনুযায়ী গান গাইতে হয়। ‘দিল দিল দিল’ গানটি দেড় কোটিরও বেশি মানুষ উপভোগ করেছে ইউটিউবে। এটা ভালো লাগা ও উৎসাহের বিষয়। সর্বশেষ ‘ধ্যাততেরিকি’ শিরোনামের একটি ছবির গান গেয়েছি। ‘রঙ্গিলা’ শিরোনামের গানটির সাড়াও ভালো।

সামনে আরোও কিছু সিনেমার গান গাইতে হবে। সেগুলোও শ্রোতারা পছন্দ করবেন বলে আমার বিশ্বাস। বর্তমানে অডিও ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা এখন কেমন মনে হচ্ছে? কনা বলেন, অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে। গত বছর থেকে অনেক কাজ হচ্ছে। এ বছরও সেই ধারা অব্যাহত আছে। শিল্পী ও সংগীত সংশ্লিষ্টরা ব্যস্ত নতুন গানে। আমি নিজেও বেশ কিছু গান প্রকাশ করেছি গত বছর থেকে। অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো বিনিয়োগ করছে শিল্পীদের অ্যালবামে। আমার মনে হয় অন্যান্য দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ডিজিটালি আমরা সঠিক পথেই এগুচ্ছি।

এখন শিল্পীরা নিজেরাও গান প্রকাশ করতে পারছে। ইউটিউব থেকে একটা আয় আসছে। আস্তে আস্তে হয়তো আরও নতুন কিছু মাধ্যমও যোগ হবে। আমি আশাবাদী ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে। এবার একটু ভিন্ন প্রসঙ্গে আসা যাক। বিয়ে করছেন কবে? কনা হেসে বলেন, বিয়েটা যেকোনো সময় করে ফেলতে পারি। যেকোনো সময় ঘোষণা দেবো। শুভ সংবাদটা এ বছরই জানাতে পারি।



আজকের জনপ্রিয় খবরঃ

গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ:

  1. বুখারী শরীফ Android App: Download করে প্রতিদিন ২টি হাদিস পড়ুন।
  2. পুলিশ ও RAB এর ফোন নম্বর অ্যাপটি ডাউনলোড করে আপনার ফোনে সংগ্রহ করে রাখুন।
  3. প্রতিদিন আজকের দিনের ইতিহাস পড়ুন Android App থেকে। Download করুন