লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য

এই ওষুধ বেশি খেলে বাড়ে মৃত্যুর আশঙ্কা, জন্মাতে পারে বিকলাঙ্গ শিশু!

লাইফস্টাইল ডেস্ক : ঘুম নিয়ে অনেকেরই খুব সমস্যা হয়। রাত হলে ঘড়ি ধরে বিছানায় যান ঠিকই, কিন্তু ঘুম কিছুতেই আসে না! ঘুমের জন্য অপেক্ষায় বিছানায় এপাশ ওপাশ করতে করতে রাত কাবার হয়ে যায়। এমন সমস্যায় যাঁরা আছেন, তাঁরা অনেকেই ঘুমানোর জন্য ঘুমের ওষুধের সাহায্য নিয়ে থাকেন। কিন্তু ঘুমের ওষুধের প্রতি অতিরিক্ত নির্ভরশীলতাও আমাদের শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। শুধু তাই নয়, নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খাওয়ার অভ্যাস ডেকে আনতে পারে মৃত্যুও!

বছর খানেক আগে আন্তর্জাতিক চিকিত্সা সংক্রান্ত পত্রিকা ‘বিএমজে ওপেন জার্নাল’-এ প্রকাশিত গবেষণাপত্র অনুযায়ী, অতিরিক্ত পরিমাণে ঘুমের ওষুধ খাওয়ার অভ্যাস আমাদের স্মৃতিশক্তি দুর্বল করে দেয়। এ ছাড়াও হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়া আশঙ্কাও বাড়িয়ে দেয় বেশ কয়েকগুণ। এই গবেষণাপত্রে দাবি করা হয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি বছরে ৩ লক্ষ ২০ হাজার থেকে ৫ লক্ষ ৭ হাজার মানুষের মৃত্যু হয় অতিরিক্ত পরিমাণে ঘুমের ওষুধ খাওয়ার অভ্যাসের ফলে।

মার্কিন গবেষক ড্যানিয়েল ক্রিপকে জানান, গবেষণায় দেখা গিয়েছে যাঁরা বছরে ১৩২ বা তার বেশি বার ঘুমের ওষুধ খান তাঁদের শরীরে একাধিক সমস্যার সৃষ্টি হয়। এগুলির মধ্যে রয়েছে, উচ্চ রক্তচাপ, মাথার যন্ত্রণা, স্নায়ুঘঠিত বিভিন্ন সমস্যা, হৃদরোগের মতো একাধিক জটিল সমস্যা। ক্রিপকে জানান, গর্ভবতী মহিলারা যদি অতিরিক্ত মাত্রায় ঘুমের ওষুধ খান, সে ক্ষেত্রে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে গর্ভস্থ ভ্রুণ। যার প্রভাবে জন্মাতে পারে বিকলাঙ্গ শিশুও। এ ছাড়া উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ঘুমের ওষুধ রক্তের লোহিত বা শ্বেত কণিকার কার্যকারিতাও কমিয়ে দেয়। তাই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, চিকিত্সকের অনুমতি ছাড়া মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খাওয়ার অভ্যাস থেকে বিরত থাকুন।

জুমবাংলানিউজ/এইচএম