খেলাধুলা

ইংল্যান্ডের জয়ে বাংলাদেশের সমীকরণ জটিল

স্পোর্টস ডেস্ক: হট ফেবারিট ভারতের বিপক্ষে টাইগাররা খেলতে নামবে ২ জুলাই। ভারতের এখন যে ফর্ম, তাতে মাশরাফিদের এই ম্যাচে জয় পাওয়াটা ভীষণ কঠিন হবে। বাংলাদেশের সমর্থকরা তাই গত কয়েকদিন ধরেই সেমিফাইনালের দৌড়ে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিদের হার কামনায় ব্যস্ত।

দুঃখের বিষয় হলো, যে দলগুলোর হারে বাংলাদেশের সুবিধা হবে, সেই দলগুলোর বেশিরভাগই কোনো না কোনোভাবে উৎড়ে যাচ্ছে। সেমিফাইনালের পথে বাংলাদেশের প্রতিদ্বন্দ্বি ধরা হচ্ছে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা আর ইংল্যান্ডকে। এর আগে ছিল নিউজিল্যান্ডও।

কিন্তু কিউইদের বিপক্ষে ম্যাচে জয়ের খুব কাছে গিয়েও ওয়েস্ট ইন্ডিজ মাত্র ৫ রানে হেরে যাওয়ায় পূর্ণ ২ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে কেন উইলিয়ামসনের দল। শেষ দুই ম্যাচে পাকিস্তান আর অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারের পরও নিউজিল্যান্ডের ঝুলিতে রয়ে গেছে ১১ পয়েন্ট। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ম্যাচটি হারলে ৯ পয়েন্ট নিয়ে বড় ঝুঁকিতে থাকতো নিউজিল্যান্ডও।

সেমির দৌড়ে বাংলাদেশের এক প্রতিদ্বন্দ্বি শ্রীলঙ্কা অবশ্য তাদের সর্বশেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে বাজেভাবে হেরেছে। এতে তাদের পয়েন্ট রয়ে গেছে ৬-তেই, নেট রানরেটও কমেছে। শেষ দুই ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর ভারতের বিপক্ষে জিতলেও লঙ্কানদের পয়েন্ট হবে ১০, জয় সংখ্যায় এগিয়ে থাকায় ইংল্যান্ড তাদের উপরেই থাকবে। শ্রীলঙ্কার সেমিতে উঠার সম্ভাবনা তাই শেষ।

তবে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বি পাকিস্তান শেষ তিন ম্যাচ জিতে অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচটি হারার ভালো সম্ভাবনা ছিল পাকিস্তানের। কিন্তু শেষদিকে আফগানদের হতাশাজনক পারফরম্যান্সে ৩ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সরফরাজের দল। এই ম্যাচে পাকিস্তানের হারই চাইছিলেন টাইগার সমর্থকরা, তাতে ৮ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে বেশ বিপদে থাকতো আনপ্রেডিক্টেবলরা। এখন পাকিস্তানের পয়েন্ট ৯।

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা অবশ্য হয়েছে আজ (রোববার রাতে)। ইংল্যান্ড-ভারতের ম্যাচে স্বভাবতই ইংলিশদের হার কামনায় ছিলেন টাইগার ভক্ত সমর্থকরা। ৭ ম্যাচ শেষে ইংল্যান্ডের পয়েন্ট ছিল ৮। আজ হারলে বেশ বিপদেই পড়তো ইংল্যান্ড। শেষ ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। হারলে তো বাদই, জিতলেও ১০ পয়েন্ট নিয়ে হিসেব নিকেশের দিকে তাকিয়ে থাকতো হতো ইংলিশদের।

ভারতকে হারিয়ে সেই ইংল্যান্ড আজই নিয়ে নিয়েছে ১০ পয়েন্ট। অর্থাৎ শেষ ম্যাচে তারা কিউইদের হারালে ১২ পয়েন্ট হয়ে যাবে। বাংলাদেশ তখন শেষ দুই ম্যাচ জিতলেও ইংল্যান্ডকে ধরতে পারবে না।

সবমিলিয়ে টাইগারদের সেমিতে খেলার সমীকরণ এখন ভীষণ কঠিন হয়ে গেছে। ভারত আর পাকিস্তানের বিপক্ষে জিতলে বাংলাদেশের হবে ১১ পয়েন্ট। তারপরও তাকিয়ে থাকতে হবে অনেক হিসেব নিকেশের দিকে। এখন পর্যন্ত যে ভারত আর নিউজিল্যান্ডের ১১ পয়েন্ট হয়ে গেছে ইতোমধ্যে। ১২ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে থাকা অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে তাদের সেমিফাইনাল প্রায় নিশ্চিত, যেহেতু রানরেট ভালো।

আজ ইংল্যান্ডের জয়ের পর ভারত কিংবা পাকিস্তানের বিপক্ষে যে কোনো এক ম্যাচ জিতে সেমিতে যাওয়ার স্বপ্ন শেষই হয়ে গেছে টাইগারদের। এখন দুই ম্যাচই জিততে হবে, তারপরও তাকিয়ে থাকতে হবে সমীকরণের দিকে।

কারণ শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ড যদি নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে দেয়, তবে তাদের হয়ে যাবে ১২ পয়েন্ট। সেক্ষেত্রে রানরেটে পিছিয়ে পড়ায় দুই ম্যাচ জিতেও বাংলাদেশ বাদ পড়ে যাবে।

আর যদি ইংল্যান্ড হেরে যায় আর বাংলাদেশ শেষ দুই ম্যাচে জিতে, তবে কোনো হিসেব নিকেশ ছাড়াই সেমিফাইনালে নাম লেখাবে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল।

সমীকরণ আরেকটা বাকি থাকে। যদি বাংলাদেশ শেষ দুই ম্যাচ জেতে এবং ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড ম্যাচে নিউজিল্যান্ড হারে, তাহলে নেট রানরেটে ঠিক হবে কারা যাবে সেমিতে, বাংলাদেশ নাকি নিউজিল্যান্ড। তবে বাস্তবতা হলো, শেষ দুই ম্যাচ ভারত আর পাকিস্তানের বিপক্ষে। বাংলাদেশের জন্য নেট রানরেটে নিউজিল্যান্ডকে পেছনে ফেলা কঠিনই হবে।