অপরাধ/দুর্নীতি আইন-আদালত জাতীয় বিভাগীয় সংবাদ

কাস্টমস কর্মকর্তাকে স্ত্রীসহ কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর করা দুর্নীতির মামলায় চট্টগ্রাম কাস্টমসের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন হাজারী ও তাঁর স্ত্রী হালিমা বেগমের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাঁদের কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ মো. আকবর হোসেন মৃধার আদালতে তারা আত্মসমপর্ণ করেন। শুনানি শেষে আদালত তাঁদের কারাগারে পাঠান।

শুল্ক কর্মকর্তা আমজাদ হোসেন সরকারি চাকরিতে থাকা অবস্থায় ২০০৮ সালে চাকরিবিধি লঙ্ঘন করে চট্টগ্রাম নগর লালখান বাজার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন। সমালোচনার মুখে ২০১০ সালে তিনি পদটি ছেড়ে দেন। তিনি এখন চট্টগ্রাম-কুমিল্লা-সিলেট কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট অফিসার্স এক্সিকিউটিভ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি।

দুদকের আইনজীবী মাহমুদুল হক জানান, হালিমা বেগম একজন গৃহিণী। অথচ ৩ কোটি ২ লাখ ৩২ হাজার টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদের মালিক তিনি। তাঁর স্বামী আমজাদ হোসেন হাজারী চট্টগ্রাম কাস্টমসের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা। অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তাঁদের বিরুদ্ধে গত ৬ জানুয়ারি নগরের ডবলমুরিং থানায় মামলা করেছে দুদক। ১৪ জানুয়ারি এই দম্পতি হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেন। আদালত তাঁদের চার সপ্তাহের মধে৵ নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের আদেশ দেন। সেই অনুযায়ী তাঁরা হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়। শুনানি শেষে আদালত তাঁদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

জুমবাংলানিউজ/পিএম