আন্তর্জাতিক

আলেপ্পো ছাড়ছে সাধারণ সিরীয় ও বিদ্রোহীরা

অস্ত্রবিরতি চুক্তি কার্যকর হওয়ার পর দ্বিতীয় দিনের মতো আলেপ্পো ছাড়ছে আটকা পড়া সাধারণ সিরীয় ও বিদ্রোহীরা। তাদের ইদলিব নগরীর বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত অংশে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

 

জাতিসংঘ জানিয়েছে, পূর্ব আলেপ্পোতে আটকা পড়া ৫০ হাজার মানুষের মধ্যে তিন হাজারেরও বেশি মানুষ বাসে করে সেখান থেকে সরে গেছে।

চলতি সপ্তাহে রুশ বাহিনীর সহায়তায় সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের অনুগত বাহিনী আলেপ্পোর বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত প্রায় সব এলাকাই নিজেদের দখলে নিয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার সিরিয়ায় রেডক্রসের প্রধান ম্যারিয়ান গ্যাসার বলেছেন, ‘তিন হাজারের মতো বেসামরিক মানুষ এবং নারী-শিশুসহ ৪০ জনেরও বেশি আহত মানুষকে বাইরে আনা হয়েছে। ‘

তিনি আরও বলেন, ‘কেউ জানে না, কত মানুষ এখানে আটকা পড়ে আছেন, আর তাদের সরিয়ে নিতে কয়েক দিন লেগে যেতে পারে। ‘

এসব মানুষকে নিকটবর্তী ইদলিব শহরের বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত অংশে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

সিরিয়ায় জাতিসংঘের বিশেষ দূত স্তেফান ডি মিস্তুরা জানিয়েছেন, ‘সেখানে ৪০ হাজার বেসামরিকসহ প্রায় ৫০ হাজার মানুষ আটকা পড়ে আছেন। ‘

 

তিনি সতর্ক করে আরও বলেন, ‘কোনো রাজনৈতিক সমাধান ও কার্যকর অস্ত্রবিরতি চুক্তি সম্ভব না হলে ইদলিবই হতে পারে পরবর্তী আলেপ্পো। ‘

আলেপ্পোতে হামলার জন্য মার্কিন কর্তৃপক্ষ সিরিয়া সরকারের সমালোচনা করে বলছে, ‘এই হামলা গণহত্যা থেকে কম কিছু ছিল না। ‘

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি বলেছেন, ‘শেষ প্রশ্নটি হলো, রাশিয়া সমর্থিত সিরিয়া সরকার কি গঠনমূলক আলোচনার জন্য জেনেভায় যাবে, আর তারা নিজেদের জনগণকে হত্যা করা বন্ধ করবে কিনা। ‘

সিরিয়া ও রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃতভাবে বেসামরিক মানুষের ওপর হামলা চালানোর অভিযোগ তোলা হলেও তা বরাবরই অস্বীকার করে আসছে দেশ দুটি।
বৃহস্পতিবার সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ তার বাহিনী ও জনগণকে আলেপ্পো ‘মুক্ত’ হওয়ার জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন।

আলেপ্পোর যুদ্ধে বহু সাধারণ জনগণ নিহত হয়েছেন। তবে তার সঠিক সংখ্যা এখনও বলা সম্ভব হচ্ছে না বলে বিভিন্ন সংস্থা জানিয়েছে।

এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি সেখানে একটি নিরাপদ এলাকা গড়তে চান, যাতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোও আংশিক আর্থিক সহায়তা করবে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) এর শীর্ষ সম্মেলনে অ্যাঞ্জেলা মেরকেল আলেপ্পোর অবস্থাকে ‘হৃদয়বিদারক’ উল্লেখ করে বলেছেন, সেখানে ইউরোপীয় কূটনীতি ব্যর্থ হয়েছে। ইইউ কাউন্সিল এর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক অনতিবিলম্বে আলেপ্পোতে মানবিক সাহায্য পৌঁছানোর সুযোগ করে দেওয়ার দাবি জানান।

ব্রিটেন জানিয়েছে, তারা আলেপ্পোতে পরিষ্কার পানি ও খাদ্যের জন্য আরও ২৫ মিলিয়ন ডলার ত্রাণ বরাদ্দ রেখেছে।

ভিডিওঃ এই নায়িকারা যৌনদৃশ্যে অভিনয়ের সময় কী করেন? (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment