slider আন্তর্জাতিক

আরো ২১০০ কোটি ডলার ঋণ চায় ইতালি

ধুঁকতে থাকা আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে বাঁচাতে আরো ২ হাজার ১০০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ চায় ইতালি। সোমবার সরকার সম্ভাবনাময় ব্যাংকগুলোকে স্থিতিশীলতায় ফেরাতে এই ঋণ নেয়ার প্রস্তাব অনুমোদন দিতে পার্লামেন্টকে অনুরোধ করেছে।

ইউরো জোনের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি ইতালি। গত প্রায় এক দশক ধরেই মন্দাক্রান্ত দেশটি। হাজার হাজার কোটি ডলার মন্দ ঋণের ভারে বৃহৎ ব্যাংকগুলো জর্জরিত। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে সেই সাথে যুক্ত হয়েছে রাজনৈতিক অস্থিরতা। ফলে বিনিয়োগকারীদের উদ্বেগ বেড়েছে।

এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে মন্তে দেই পাচি দি সিয়েনা ব্যাংক বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৫২০ কোটি ডলার সংগ্রহ করার উদ্যোগ নিয়েছে। এই পরিকলল্পনা যদি ভেস্তে যায় তাহলে সরকার চালু থাকা বিশ্বের সর্বপ্রাচীন এই ব্যাংকটিকে দেউলিয়া ঘোষণা করতে পারে।

ইতালির বৃহত্তম ব্যাংক ইউনিক্রেডিট গত সপ্তাহ ১৩শ ৫০ কোটি ডলার সংগ্রহের পরিকল্পনা জানিয়েছে। একই সাথে তারা কয়েক হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণাও দিয়ে রেখেছে।

বিশেষ করে চলতি বছর ইতালির ব্যাংকগুলোর শেয়ার দরের পতন ঘটেছে ব্যাপক হারে। দুই সপ্তাহ আগে সংবিধান সংশোধনের লক্ষ্যে আয়োজিত গণভোটে হেরে প্রধানমন্ত্রী মাত্তেও রেনজির পদত্যাগের পর যে রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে তা ব্যাংকগুলোর জন্য আরো বড় উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
রেনজির উত্তরসূরী পাওলো জেনতিলোনি সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, অর্থনৈতিক খাতের সম্ভাব্য ঝুঁকি সামলাতে আগাম সতর্কতা হিসেবে বিপুল অংকের অর্থ ঋণ নেয়ার অনুমোদন চাওয়া হচ্ছে।

ইতালির বর্তমান সরকারি ঋণের পরিমাণ ২ লাখ ২৩ হাজার কোটি ডলার, যা দেশটির জিডিপির ১৩৬ শতাংশ। ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে গ্রিসের পরেই ঋণ অনুপাত সবচেয়ে বেশি ইতালির।

ভিডিওঃ তোমরা যারা জাকির নায়েকের বিরোধিতা করো তাদের জন্য এই ভিডিও

Add Comment

Click here to post a comment