খেলাধুলা

আরামবাগ হার মানতে না পেরে রেফারিকে পেটিয়ে মারলো!

[better-ads type='banner' banner='1187323' ]
বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে খেলা উত্তেজনার মুহূর্তে। ফাইল ছবি

স্পোর্টস ডেস্ক : ফেডারেশন কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনীর বিপক্ষে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে খেলা উত্তেজনার চরম মুহূর্তে। নির্ধারিত সময় শেষে ম্যাচ তখন ২-২ এ ড্র। ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। ৯০ মিনিট পেরিয়ে ম্যাচ যখন রেফারির শেষ বাঁশির অপেক্ষায় আরামবাগের জালে বল জড়িয়ে আবাহনীকে লিড এনে দেন বেলফোর্ট।

আকাশী-নীল শিবিরের উল্লাসের মুহূর্ত শেষ হতে না হতেই বল নিয়ে আবাহনীর রক্ষণ শিবিরে আরামবাগের আক্রমণভাগের ফুটবলারদের গোল করবার প্রচেষ্টা। শেষ বাঁশি বাজলো বলে। এমন সময়ে চলমান ম্যাচের মধ্যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্ম দিয়েছে আরামবাগ।

ডাগ আউট থেকে দৌড়ে মাঠের মধ্যে প্রবেশ করে সহকারী রেফারি হারুন-উর-রশিদকে পেটাতে শুরু করেন আরামবাগের এক কর্মকর্তা! সঙ্গে সাপোর্টিং স্টাফরা মিলে কিল-ঘুষি মারতে থাকেন ম্যাচের এই সহকারী রেফারিকে। তাকে ঘিরে ধরে চারদিক থেকে। কয়েকজন আইস বক্স দিয়ে পেটাতে থাকেন এলোপাথারিভাবে।

মিনিট তিনেক এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনা চলতে থাকে। এমন সময় মাঠের নিয়োজিত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মীরা এসে জটলা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান রেফারিকে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বড় কোন আহতের শিকার হননি এই সহকারী রেফারি। তবে, দেশের পেশাদার জায়ান্ট টুর্নামেন্টে এমন অনাহূত কাণ্ডে নিরাপত্তা নিয়ে সংশয় জেগেছে ফুটবল পাড়ায়। এর আগেও রেফারিকে পেটানোর ঘটনা ঘটেছে স্টেডিয়ামে।

ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ৩-২ ব্যবধানে হারিয়ে সেমি ফাইনালে পা রেখেছে জাকারিয়া বাবুর শিষ্যরা।

জুমবাংলানিউজ/এসএস