আন্তর্জাতিক

‘আমিও ধর্ষিত হতে পারি, আমাকেও হত্যা করা হতে পারে’

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের কাঠুয়ায় আট বছরের শিশুকে গণধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় করা মামলার আইনজীবী আতঙ্কে আছেন বলে জানিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, নিজের নিরাপত্তা চাইতে সুপ্রিম কোর্টে যাবেন তিনি। দিপীকা এস রাজওয়াত নামের ওই আইনজীবী বলেছেন, তিনি আশঙ্কা করছেন, তাকেও ধর্ষণ কিংবা হত্যা করা হতে পারে।

রাজওয়াত রোববার বলেন, ‘আমি জানি না, আমি কতদিন বাঁচব। আমিও ধর্ষিত হতে পারি। আমাকেও হত্যা করা হতে পারে, কিংবা ক্ষতি করা হতে পারে। আমাকে গতকাল (শনিবার) হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘আমরা তোমাকে ক্ষমা করব না’। আমি আগামীকাল সুপ্রিম কোর্টে বলব, আমি বিপজ্জনক অবস্থায় আছি।’

প্রসঙ্গত, বর্বর এই গণধর্ষণ ও হত্যার ঘটনা পুরো ভারতকে নাড়িয়ে দিয়েছে। হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছেন। সেলিব্রেটি ও খেলোয়াড় থেকে শুরু করে সর্বস্তরের মানুষ এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। এমনকি দেরিতে হলেও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ ঘটনার বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন। প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছিলেন দেশটির বিরোধী দল কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট রাহুল গান্ধী।

আলোড়িত এ গণধর্ষণ ও হত্যা মামলার বিচার আজ শুরু হয়েছে। অবসরপ্রাপ্ত এক রাজস্ব কর্মকর্তা, দুই পুলিশ সদস্য ও এক শিশুসহ ছয়জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। জানুয়ারি মাসে কাঠুয়ার যাযাবর বাখেরওয়াল মুসলিম সম্প্রদায়ের ওই শিশু অপরহরণ করা হয়। এরপর তাকে ছোট্ট একটি মন্দিরে আটকে রেখে কয়েকদিন ধরে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয় এবং শেষ পর্যন্ত তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়।

rape

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জম্মু-কাশ্মীর সরকার এ মামলায় দুইজন বিশেষ প্রসিকিউটর নিয়োগ দিয়েছে, যাদের দুইজনই শিখ সম্প্রদায়ের। অন্যদিকে, অভিযুক্তরা সবাই হিন্দু সম্প্রদায়ের।

উল্লেখ্য, গত ১৭ জানুয়ারি ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের পর হিন্দু একতা মঞ্চ নামের ব্যানারে বিক্ষোভ করা হয়। এর মধ্যে দুইজন ক্ষমতাসীন বিজেপির মন্ত্রী ও বিরোধী দল কংগ্রেস সংশ্লিষ্ট আইনজীবীদের একটি সংগঠন রয়েছে।

rape

জুমবাংলানিউজ/আর