অপরাধ/দুর্নীতি জাতীয় ঢাকা স্লাইডার

আবরারের ঘাতক সেই বাস চালকের লাইসেন্সই ছিলো না

জুমবাংলা ডেস্ক : বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীকে চাপা দেয়া সুপ্রভাত বাসের চালকের গাড়ি চালানোর লাইসেন্স ছিলো না বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকাল সাড়ে ৭টায় রাজধানীরপ্রগতি সরণিতে বেপরোয়া বাসের চাপায় পৃষ্ট হয়ে নিহত হন আবরার।

ওই দুর্ঘটনার পরেই বাবা অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আরিফ আহমেদ চৌধুরী ইতোমধ্যে বাদী হয়ে গুলশান থানায় হত্যা মামলা করেন। এজাহারে উল্লেখ করেছেন, বাস চাপার এ ঘটনায় ঘাতক বাস সুপ্রভাতের চালক ও হেলপার জড়িত থাকতে পারে।

ওই এজাহারের ভিত্তিতে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, চালক সিরাজুল ইসলামের বাস চালানোর কোনও লাইসেন্সই ছিলো না। তার শুধু মোটরসাইকেল চালানোর লাইসেন্স ছিল। সেই লাইসেন্স নিয়েই এতদিন ধরে সে বাস চালকের কাজ করে আসছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রাজধানীর ভাটারার প্রগতি সরণি এলাকায় যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে বাস চাপায় নিহত হন আবরার আহমেদ চৌধুরী। এ ঘটনার পর বাস চালক ও হেলপার পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে চালককে ধরে ফেলে সেখানে থাকা শিক্ষার্থীরা। পরে তাকে আটক এবং বাসটি জব্দ করে পুলিশ।

রাজধানীতে চলছে ট্রাফিক সপ্তাহ। এর মাঝে সকালে জেব্রা ক্রসিং দিয়েই রাস্তা পার হচ্ছিলেন ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র আবরার। সেই জেব্রা ক্রসিংয়ের ওপরই ঘটলো এই বাসচাপার ঘটনা।

ইতোমধ্যে সুপ্রভাত পরিবহনের রুট পারমিট ও লাইসেন্স বাজেয়াপ্ত করে রাজধানীতে ওই বাসের চলাচল নিষিদ্ধ করার কথা জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

জুমবাংলানিউজ/এইচএমজেড