লাইফ স্টাইল স্বাস্থ্য

আধুনিক বিশ্বে যে ৬ কাজে বন্ধ্যা হচ্ছে পুরুষ

আধুনিক বিশ্বে পুরুষের বন্ধ্যাত্বের হার বেড়েছে। আমাদের দৈনন্দিন খাবার, অভ্যাস এবং এমন কিছু কাজ আছে, যেগুলো পুরুষকে বন্ধ্যা করে দিচ্ছে।

নিচে এই কাজগুলো দেয়া হলো;

১. ধুমপানের মতো বদভ্যাসের সঙ্গে সম্পর্কিত রোগের সংখ্যা প্রচুর। এই তালিকায় বিস্ময়করভাবে যোগ হয়েছে বন্ধ্যাত্ব। ধুমপায়ীদের মধ্যে ১০-৪০ শতাংশই নিম্ন প্রজনন ক্ষমতার হয়ে থাকেন। এতে ধীরে ধীরে বন্ধ্যাত্বে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

২. আটোসাটো আন্ডারওয়ার পরলে পুরুষের অস্ট্রোজেন হরমোনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। এই হরমোনটি যেহেতু শুক্রানু তৈরির বিষয়টিকে প্রভাবিত করে, তাই আটোসাটো আন্ডারওয়ার পড়লে সেটা ক্ষতি ডেকে নিয়ে আসতে পারে।

৩. মোবাইল ফোন আমাদের নিত্যসঙ্গী হয়ে গেছে। এটা হয়তো আমাদের একঘেয়েমি কাটাতে বেশ উপকারী। কিন্তু, মোবাইল ফোন বিশেষ করে স্মার্টফোন অধিক সময়ের জন্য কাছে রাখলে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। কারণ মোবাইল ফোনে ক্ষতিকর রশ্মি বের হয় যেটা শুক্রানোর গুণাগুণে প্রভাব ফেলতে পারে।

৪. মিষ্টি দেখলে হয়তো আপনার জিভে জল এসে যায় কিন্তু, সতর্ক থাকতে হবে। কারণ এটা আপনার স্পার্মের পরিমাণ ও গুণাগুণে প্রভাব ফেলতে পারে! অতিরিক্ত মিষ্টি খাওয়া বন্ধ্যাত্বের কারণ হতে পারে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বন্ধ্যা হচ্ছে পুরুষ

৫. ল্যাপটপ এখন নিত্যসঙ্গী হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি হয়তো মাঝে মাঝে কোলে নিয়ে কাজও সারেন। কিন্তু, এটা সত্যিই অনেক ক্ষতির কারণ হতে পারে। আপনি বেখেয়ালে যখন কোলে তুলে ল্যাপটপ ব্যবহার করছেন, তখন হয়তো খেয়াল করেননি ল্যাপটপের রেডিয়েশন আপনার স্পার্মের ক্ষতি করছে, গুণাগুণ নষ্ট করছে। কোলে নিয়ে ল্যাপটপের অতিরিক্ত ব্যবহার বন্ধ্যাত্বের কারণ হতে পারে শঙ্কা চিকিৎসকদের।

৬. প্রক্রিয়াজাত দুধ এবং অল্প ফ্যাটের পনির আপনার বড় শত্রু হতে পারে। অনেকে ওজন কমানোর জন্য এগুলো খেয়ে থাকেন কিন্তু, এটা পুরুষের শুক্রাণু ও নারীর ডিম্বানুর ওপর বড় আকারে প্রভাব ফেলে। এজন্য সেগুলোর ব্যাপারে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞরা।