আন্তর্জাতিক

আটচল্লিশ ঘণ্টার মধ্যেই আইনি জবাব মুকুলের

জার্সি বদলে পদ্মশিবিরে এসেই ঘাসফুলের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন মুকুল রায়। ট্যাপ করা হয়েছে তাঁর ফোন। এবার সেই ইস্যুতেই রাজ্যের বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করছেন মুকুল রায়।

বিশ্ববাংলা বিতণ্ডায় আইনি পথে হাঁচটে শুরু করেছে তৃণমূল। মুকুল রায়কে নোটিস দিয়েছে অভিষেকের আইনজীবীর। আটচল্লিশ ঘণ্টার মধ্যে আইনি ভাষাতেই জবাব দিলেন মুকুলের আইনজীবী। ফোনে আড়িপাতার অভিযোগ নিয়ে এবার রাজ্যের বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করছেন মুকুল রায়।

জার্সি বদলে পদ্মশিবিরে এসেই ঘাসফুলের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন মুকুল রায়। ট্যাপ করা হয়েছে তাঁর ফোন। তৃণমূলের বিরুদ্ধে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছিলেন মুকুল রায়। এবার সেই ইস্যুতেই রাজ্যের বিরুদ্ধে দিল্লি  হাইকোর্টে মামলা করছেন মুকুল রায়। কেন্দ্রীয় টেলি যোগাযোগ মন্ত্রক এবং ট্রাইকেও মামলায় যুক্ত করছেন তিনি।

সময় যত গড়িয়েছে তত বেড়েছে সংঘাত। কখনও তৃণমূল। কখনও সরাসরি রাজ্য সরকার। তুঙ্গে উঠেছে তরজা। বিশ্ব বাংলা নিয়ে রাজ্যের দুই আমলাকে কার্যত তুলোধোনা করেছেন মুকুল রায়। আর এই চাপান-উতোরে মুকুলকে ফুল সাপোর্ট দিচ্ছে দল। বিশ্ব বাংলা লোগো বিতর্কে রাজ্যের দুই আমলার বিরুদ্ধে কেন্দ্রের কাছে চিঠি পাঠানো হচ্ছে। অত্রি ভট্টাচার্য ও রাজীব সিনহার বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার অভিযোগ তুলে চিঠি দিচ্ছে রাজ্য বিজেপি।

চুপ করে বসে নেই তৃণমূলও। মুকুলকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবী। দুদিনের মধ্যে নিঃশর্তে ক্ষমা চাইতে হবে মুকুল রায়কে। না হলে মানহানির মামলার হুঁশিয়ারি। জবাব দিতে সময় নেননি মুকুল রায়ও। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আইনি ভাষাতেই জবাব, জানালেন মুকুলের আইনজীবী।

তৃণমূল বিরোধী সুরটাকে কয়েকগুণ চড়া করতেই মুকুল রায়কে দলে টেনেছিল বিজেপি। সেই তরজার সুর এখনই সপ্তমে। রাজ্যের মাটিতে সেই ফয়দা কতটা তুলতে পারবে বিজেপি?