আন্তর্জাতিক

অশান্ত হয়ে পড়েছে ভারতীয় রাজ্য মণিপুর

পৃথক নাগা অধ্যুষিত জেলা তৈরির সিদ্ধান্তের জের ধরে ভয়াবহ রকমের অশান্ত হয়ে পড়েছে ভারতীয় রাজ্য মণিপুর৷ চলছে নাগা ও মণিপুরীদের ডাকা অবরোধ পালটা অবরোধ ও সন্ত্রাসী হানা৷পূর্ব ইম্ফল জেলায় অন্তত ২২টি বাস পুড়িয়ে দেয়া হয়৷ নাগাবিরোধী মণিপুরিদের বিরুদ্ধে অভিযোগের তির৷ রোববার বিকেল পর থেকে শুরু হয়ে গেছে বাসে আগুন ধরানোর পালা৷ বিভিন্ন সংবাদ সংস্থার খবর, দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে সহিংসতা৷ বিক্ষোভের জেরে বন্ধ ইম্ফল থেকে নাগা অধ্যুষিত উখরুল জেলায় যাওয়ার রাস্তা৷ পরিস্থিতি শান্ত করতে রাজ্যে মোবাইল পরিষেবা বন্ধ৷ জারি করা হয়েছৈ কারফিউ৷
রাজ্যে নাগা অধ্যুষিত সাতটি জেলা গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ওকরাম ইবোবি সিং৷ এর বিরোধিতায় সামিল হয়েছে ইউনাইটেড নাগা কাউন্সিল৷ তাদের বিক্ষোভ ও অবরোধে বিপর্যস্ত মণিপুরের অর্থনীতি৷ কংগ্রেস শাসিত রাজ্যটিতে নাগা জাতির সঙ্গে অন্যান্য জাতির বিরোধিতা ক্রমেই বাড়ছে৷ অভিযোগ নির্বাচন আসন্ন জেনে রাজ্যে জাতিবিদ্বেষ তৈরি করছেন মুখ্যমন্ত্রী ইবোবি সিং৷ যদিও তিনি নাগা অধ্যুষিত অঞ্চলে নতুন জেলা গঠনের সিদ্ধান্তে অনড়৷ ফলে মণিপুর নিবাসী নাগা জাতির মধ্যে ক্ষোভ পেকে উঠেছে৷ আগামী ফেব্রুয়ারিতেই নির্বাচন এই রাজ্যে৷
মণিপুরের উখরুল, চান্দেল, তামেংলং, ও সেনাপতি জেলা নাগা অধ্যুষিত এলাক৷ এই অঞ্চলে নাগাল্যান্ডের শাসক দল এনপিএফ (নাগা পিপলস ফ্রন্ট)-এর প্রভাব বেশি৷ একই সঙ্গে এনএসসিএন (আই-এম) বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর প্রভাবও রয়েছে৷
সংগঠনটি সম্প্রতি অস্ত্র ত্যাগ করে কেন্দ্র সরকারের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে৷ শনিবার এনএসসিএন(আই-এম)৷-এর বিরুদ্ধেই সেনা ক্যাম্পে হামলা ও অস্ত্র লুঠের অভিযোগ তোলা হয়৷ যদিও রাজ্য সরকারের দাবি অস্বীকার করেছে সংগঠনটি৷

Add Comment

Click here to post a comment