অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয় স্লাইডার

‘অর্থমন্ত্রী বোকার স্বর্গে বাস করছেন’

এম রহমান: ব্যাংকিং খাতকে স্বচ্ছ করে গড়ে তুলতে হলে বহুল আলোচিত কমিশন দ্রুত গঠন করা জরুরি। অন্যথায় এ খাতের জন্য রাজস্ব খাতে মারাত্মক অস্থিরতা নেমে আসবে বলে ধারনা করছেন দেশের অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন এ খাতে জবাবদিহিতা মূলক কমিশন গঠন না করে  হলে প্রণোদনা দেয়া হলে তা রাজস্ব খাতকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে।

জানা গেছে, এবারের জাতীয় বাজেটে ব্যাংক মালিকদের করপোরেট করহারে একটি বড় ছাড় দেয়া হয়েছে, যা অন্য কোম্পানির সঙ্গে তুলনা করলে একটি বৈষম্যমূলক সিদ্ধান্ত হিসেবে পরিগণিত হবে। এছাড়া করপোরেট কর কমানোর বিষয়টি যুক্তিসঙ্গতও নয়।

এ প্রসঙ্গে আলাপকালে ড. মোহাম্মদ আবু ইউসুফ বলেন, ‘আমাদের কাঙ্ক্ষিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে হলে ব্যাংক খাতে জবাবদিহিতামূলক স্বচ্ছ একটি কমিশন গঠনের বিকল্প কিছু নেই। তা না করে যদি এ খাতে প্রণোদতনা দেয়ার স্বিদ্ধান্ত নেয়া হয় তাহলে অর্থমন্ত্রী বোকার স্বর্গে বাস করছেন।’   

তিনি বলেন, বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ বৃদ্ধি, দারিদ্র্য বিমোচন ও আর্থিক বৈষম্য নিরসন করে টেকসই উন্নয়নের উপর আমাদের গুরুত্ব দেয়া জরুরি। এ জন্য শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও সামাজিক নিরাপত্তা খাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

একই প্রসঙ্গে আলাপকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. শফিক উজ জামান বলেন, আমাদের জাতীয় বাজেট প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে আরো কার্যকর কৌশল গ্রহণ করা প্রয়োজন। ভ্যাট, কাস্টম ডিউটি ও আয়কর খাতে কোনো উল্লেখযোগ্য সংস্কার না করে ৩০ শতাংশ রাজস্ব প্রবৃদ্ধি কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

এটি একটি হাস্যকর বাজেট উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের ব্যাংক সেক্টরই দুর্নীতির আখড়া। এ খাত দিয়ে দেশ থেকে বিশাল অংকের টাকা বিদেশে পাচার হয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া ব্যাংক কর্মকর্তাদের যোগসাজশে দেশে প্রতিনিয়ত ঋণ খেলাপী বাড়ছে। আইনের ফাক ফোকরে তারা আবার  ধরা ছোঁয়ার বাইরে চলে যাচ্ছে।

তবে দ্রুত সংস্কার কমিশন গঠন করে ব্যাংকিং খাতের দুর্বলতা ও অস্থিরতা দূর করতে পারলে এ সব সংকট কাটানো সম্ভব হবে বলেও মন্তব্য করেন দেশের খ্যাতিমান এ অর্থনীতিবিদ।

তিনি দাবি করেন, বাজেটের সুফল সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। বিস্তারিত মূল্যায়ন ও বিশ্লেষণের জন্য সংসদে উপস্থাপনের আগেই তিনি জাতীয় বাজেটের তথ্যাবলি জনসমক্ষে প্রকাশের জন্য সরকারের প্রতি পরামর্শ দেন।

এমআর/

জুমবাংলানিউজ/পিএম