অন্যরকম খবর

এক চা-বিক্রেতার কাছে যেভাবে মিলল ১১ কোটি টাকা

তিনিও ভারতের গুজরাটে থাকেন। তিনিও বিক্রি করতেন চা। এখন অবশ্য সুদের কারবারি। দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মভূমির এমনই এক ব্যবসায়ীর সম্পত্তির হিসেব নিতে গিয়েই চক্ষু চড়কগাছ আয়কর কর্তাদের। প্রায় ১১ কোটি টাকার মালিক প্রাক্তন চা-বিক্রেতা। সবটাই হিসেব বহির্ভূত সম্পত্তি ও কালো টাকা।

নোট বাতিলের পর থেকে দেশ জুড়ে ধরপাকড় শুরু করেছেন আয়কর কর্তারা৷ হানা দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন রাজ্যেই৷ সম্প্রতি সুরাতে অভিযান চালিয়ে এই বেআইনি সম্পত্তির হিসেব পান আধিকারিকরা।

প্রাক্তন চা-বিক্রেতা তথা সুদের কারবারির কাছ থেকে মিলেছে ১.০৫ কোটি নতুন নোট সহ ১.৪৫ নগদ টাকা, ১.৪৯ কোটি টাকার সোনার-রুপোর বাট, ৪.৯২ কোটি টাকার সোনার গয়না, ১.২৮ কোটি টাকার রুপোর গয়না এবং ১.৩৯ কোটি টাকার অন্যান্য বহুমূল্য রত্নের গয়না৷ সবমিলিয়ে মোট বেআইনি সম্পত্তির পরিমাণ ১০.৫০ কোটি টাকা।

গুজরাটের ব্যবসায়ীর বিভিন্ন ব্যাঙ্কে মোট ১৩টি অ্যাকাউন্ট ও লকার খুলে এই সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছেন আয়কর কর্তারা৷ এখনও চারটি অ্যাকাউন্ট খোলা বাকি রয়েছে৷ তাতে আরও বেআইনি সম্পত্তি পাওয়ার আশা করছেন তাঁরা। -সংবাদ প্রতিদিন।

ভিডিও নিউজ : দিলদার আর হুমায়ুন ফরিদির অভিনয় দেখলে হাসতে হাসতে দম বন্ধ হবার উপায়(ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment