খেলা-ধুলা

বিশ্বাস করা কঠিন, ব্যাটসম্যানের ভাগ্য দেখে সবার চোখ কপালে!

খেলোয়াড়রা হতবাক। ভাষা খুঁজে পান না ধারাভাষ্যকার। বোলার কিংকর্তব্যবিমুঢ়। মাথায় হাত। ব্যাটসম্যানের চেহারায় নার্ভাস হাসি। এও সম্ভব? কিভাবে? এক কথায় এতো অবিশ্বাস্য। মঙ্গলবার ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) এক ব্যাটসম্যানের ভাগ্য দেখে সবার চোখ উঠেছে কপালে। ব্যাটসম্যান বল মিস করেন। বেশ জোরে স্টাম্পে আঘাত করে বল। বেল লাফিয়ে ওঠে। কিন্তু সেই বেল সুবোধ বালকের মতো আবার এসে জড়সড় হয়ে স্টাম্পের ওপর নির্ধারিত জায়গাটিতে জমে যায়! ব্যাটসম্যান বেঁচে যান।
এই মহা ভাগ্যবান ব্যাটসম্যানের নাম আন্দ্রে ফ্লেচার। ক্যারিবিয়ান ব্যাটার সেন্ট লুসিয়া স্টার্সের। খেলছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজদের দল ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে। সোজা বলটা মিস করে ফ্লেচার নিজেও নিশ্চয়ই বুঝেছিলেন তিনি শেষ। ফিরতে হবে। ফিল্ডাররা সব লাফিয়ে ওঠেন সোৎসাহে। কিন্তু দেখতে না দেখতে তাদের মুখের হাসি হারিয়ে যায়। তখন ঠিক বুঝে ওটা যায় না এ কিভাবে হলো।
রিপ্লে দেখে সবাই আরো বোকা বনে যান। দেখা যায় বলের আঘাতে লেগ বেল বাতাসে ভেসে ওঠে লাফিয়ে। কিন্তু কি তার ভারসাম্য! সেই বেল আবার নেমে আসে নিচে। তারপর ঠিক খাঁজে খাপে খাপে আটকে যায়। মনে হয়, কিছুই হয়নি। একেবারে স্টাম্পে বল লাগার আগে যে অবস্থা ছিল তাই যেন!
আসলে বলটা তো আর গিয়ে চুমু খায়নি স্টাম্পে, ওটা রীতিমতো আঘাত হেনেছিল। লাইভ ধারাভাষ্যকাররাও বুঝে ওঠেন না। কিছুক্ষণের মধ্যে স্টার্সের কোচ সাইমন ক্যাটিচকেই প্রশ্ন করেন। ক্যাটিচ বেশ মজা করেই বলেন, ‘নিশ্চয়ই বলের নিচে কেউ চুইং গাম লাগিয়ে দিয়েছিল।’