বিনোদন

সালমান শাহর শ্বশুরের বক্তব্যের যে জবাব দিলেন ’রহস্যময়ী’ রুবি

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রহস্যজনকভাবে মারা যান বাংলা সিনেমার অমর নায়ক সালমান শাহ। পরে মৃত্যুর ঘটনায় আদালতে মামলা করা হয়। বিগত ২০ বছরেরও বেশি সময়ে তার মৃত্যু-রহসের কোনো সমাধান হয়নি। এর মধ্যে এক ভিডিওতে শাহ হত্যা মামলার ৭ নম্বর আসামি রুবি নামের এক নারী দাবি করেছেন, জনপ্রিয় এই নায়ককে হত্যা করা হয়েছে। সালমানের শ্বশুর শফিকুল হক হীরা (সামিরার বাবা) অবশ্য সেই দাবিকে ভিত্তিহীন বলেছেন। এরপর আবারো কথা বলেছেন সালমান শাহ হত্যা মামলার আসামি ‘রহস্যময়ী’ রুবি।

আমেরিকা প্রবাসী বাংলাদেশি রাবেয়া সুলতানা রুবি সোমবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সালমানকে হত্যা করা হয়েছে এমন দাবি করে একটি ভিডিও ছাড়েন। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে রুবি বলেছেন- ’জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহ আত্মহত্যা করেনি। তাকে মূলত খুন করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের পেছনে সালমান শাহ’র স্ত্রী সামিরা ও তার পরিবার জড়িত।’ এরপর সালমান শাহ’র শ্বশুর এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রথম অধিনায়ক শফিকুল হক হীরা গণমাধ্যমে সেই দাবিকে ভিত্তিহীন বলেন। তিনি বলেন, ’এই বক্তব্য অবান্তর। ভিডিও প্রকাশকারী রুবি হয়তো মানসিকভাবে বিপর্যস্ত।’

সালমান শাহর স্ত্রী সামিরার বাবা শফিকুল হক হীরা বলেন, ‘রুবি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছে হয়তো। ভিডিওটি আমি বেশ কয়েকবার দেখেছি। যা অত্যন্ত হাস্যকর মনে হয়েছে। যতোদূর জানি রুবির সঙ্গে তার স্বামীর ডিভোর্স হয়েছে। জীবন সায়াহ্নে এসে হয়তো অর্থনৈতিক কোন সমস্যায় পড়েছে। এ জন্যই হয়তো তার মাথা বিগড়ে গেছে। রুবি বর্তমানে নিঃস্ব। সন্তানদের নিয়ে সংকটে আছে। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। যা খুশি তাই বলছে। হয়তো সালমানের মা টাকার লোভ দেখিয়ে ওকে দিয়ে এসব বলাচ্ছে। পুরনো ইস্যুতে রং মাখাচ্ছে।’

সালমানের শ্বশুর এই বক্তব্য নজর কেড়েছে ভিডিও প্রকাশকারী রুবির। আমেরিকায় বসে রুবি ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে হীরার নানা ধরণের প্রশ্নের উত্তর দেন। রুবি তার হোটেলের ছবি দিয়ে জানান, ‘আমি বর্তমানে নিউ ইয়র্কের এক হোটেলে আছি। মাথা খারাপ মানুষকে এখানে হোটেল ভাড়া দেয়া হয় না।’

রহস্যময়ী রুবি আরো বলেন, ’হীরা ভাই, তাহলে কি আমি দেশে আসবো? আপনি কি প্রমাণ করতে পারবেন আমার সঙ্গে স্বামীর ডিভোর্স হয়েছে? মুখে মুখে এসব বললে চলবে না। সম্ভব হলে প্রমাণ করুন।’

জানা গেছে, শফিকুল হক হীরার স্ত্রী বর্তমানে চীন ও আমেরিকায় ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। সামিরা বর্তমানে দ্বিতীয়বার বিয়ে করে সুখের সংসার করছেন। হীরা বলেন, ‘সালমানের ঘটনায় অনেক ঝামেলার মধ্যে যেতে হয়েছে আমার পরিবারকে। পাগলে অনেক কিছুই বলতে পারে। এ সবে কান দেয়ার কিছু নেই।’