খেলা-ধুলা

এই ফুটবলার মা ও ছোট বোনকে খুন করে যা বললেন

নিজের মা ও ছোট বোনকে খুন করলেন ইতালির তরুণ এই ফুটবলার। সলোমন নায়ান্তাকির বয়স সবে ২১ বছর। খেলতেন ইতালির ক্লাব পার্মার যুব দলে। এই ক্লাবটির একাডেমিতে বেড়ে উঠেছেন তিনি। ক্লাবটির যুব দলের হয়ে বেশ কয়েকটি শিরোপা জিতেছেন। পার্মার সিনিয়র দলে ডাক পাওয়ার অপেক্ষায় ছিলেন তিনি। কিন্তু এরই মধ্যে ঘটিয়ে ফেললেন ভয়ঙ্কর এক ঘটনা। নিজের মা ও বোনকে খুন করলেন তিনি। জোড়া খুনের দায়ে পুলিশের হাতে বন্দী এখন।

ঘটনা ঘটেছে গত মঙ্গলবার। পার্মার একটি বাসার ষষ্ঠ তলায় পরিবারের সাথে থাকতেন তিনি। সেদিন রাত ৯টার দিকে বাসায় ফেরেন তার ২৫ বছর বয়সী বড়ভাই। তিনি বাসার দরজা বন্ধ দেখেন। দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে দেখেন রক্তে ভেসে যাচ্ছে ফ্লোর। আর তারমধ্যে পড়ে আছে তার ৪৫ বছর বয়সী মা ও ১১ বছর বয়সী বোন।

স্থানীয় পুলিশকে খবর দিলে তারা লাশ উদ্ধার করে। তখন থেকে পালাতক ছিলেন সলোমন। পরে পুলিশ তাকে মিলান থেকে আটক করে। নিজের মুখে মা ও বোনকে খুন করার কথা স্বীকার করেছে সে, ‘হ্যা, সত্যি। আমি আমার মা বোনকে ছুরিকাঘাত করে খুন করেছি। আমাদের রুমের মধ্যে আমি তাদেরকে একাধিকবার ছুরি মেরে খুন করি।’ পার্মায় সলোমনের সতীর্থ গডফ্রেড এডোফো তার এমন জঘন্য ঘটনা ঘটানোর জন্য মাদক ও খারাপ সঙ্গকে দুষলেন।

গডফ্রেড বলেন, ‘সলোমন খুবই শান্ত একটি ছেলে ছিল। কিন্তু গত বেশ কিছুদিন তারমধ্যে অকে পরিবর্তন দেখি। তিন সপ্তাহ আগে মাদক গ্রহণ করে সে রাস্তায় পড়ে ছিল। আমি তাকে সেখান থেকে তুলে তার বাড়ি পৌঁছে দেই। আমি তাকে মাদক ও খারাপ সঙ্গ ছাড়ার অনুরোধ করি। কিন্তু সে আমাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করে। সে দারুণ মেধাবি একজন ফুটবলার ছিল। তার দুই পা সমান চলতো। কিন্তু মাদক ও খারাপ সঙ্গ তাকে শেষ করে দিলো।’ সলোমনের বাবা ও মা আফ্রিকার দেশ ঘানার। কিন্তু সলোমনের জন্ম ও বেড়ে ওঠা ইতালিতে।