আন্তর্জাতিক

মার্কিন নির্বাচন আসলে ‘গাধা-হাতি’র লড়াই

1aলড়াই যখন হাতি-গাধার। কে জিতবে এই লড়াইতে? ভাবছেন, এ আবার কেমন প্রশ্ন? কিন্তু এটাই এখনও পৃথিবীর সবচেয়ে আলোচিত বিষয়। কারণ, এই প্রশ্নের উত্তরই ঠিক করে দেবে আগামী চার বছরের জন্য আমেরিকার শাসনভার কার হাতে যাবে। যদিও বিতর্ক রয়েছে, তবুও অনেকেই মনে করেন আমেরিকার প্রেসিডেন্টই কার্যত বিশ্বের শাসনকর্তা। সুতরাং, বুঝে নিন হাতি বনাম গাধার লড়াইটা কতটা তাত্পর্যপূর্ণ। জানি, আপনার সব তালগোল পাকিয়ে যাচ্ছে, ভাবছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আবার হাতি-গাধা এলো কোথা থেকে!

আসলে আমেরিকার সাধারণ নির্বাচনে অবধারিতভাবেই হাতি-গাধা আসছে। কারণ, যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান দুই দলের প্রতীক যে গাধা ও হাতি। ডেমোক্রেটিক দলের নির্বাচনী প্রতীক গাধা আর রিপাবলিকান দলের নির্বাচনী প্রতীক হাতি। নিয়ম অনুযায়ী আসন্ন নির্বাচনে গাধা প্রতীক নিয়ে হিলারি এবং হাতি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন ট্রাম্প।

সম্ভবত, ১৮০০ সালের দিকে যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক কার্টুন নিয়ে লোকজন খুব চুলচেরা বিশ্লেষণ করত। এসব কার্টুন ইতিবাচক বা নেতিবাচক উভয় অর্থেই ব্যবহার হতো। যেমন— গাধা হতে পারে কষ্ট সহিষ্ণুতার প্রতীক, আবার একে হাস্যরস বা বোকার প্রতীক হিসেবেও দেখা হয়। তেমনি হাতি হতে পারে মহান কিছু, আবার হতে পারে বোকা বা খারাপ কিছুর প্রতীক। প্রেসিডেন্ট এ্যান্ড্রু জ্যাকসন ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সপ্তম প্রেসিডেন্ট (১৮২৯-১৮৩৭)। নির্বাচনের সময় রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তাকে গাধা বলে ডাকত। জ্যাকসন নামটি পছন্দ করেন এবং গাধাকে নির্বাচনী প্রতীক হিসেবে বেছে নেন। একই সময়ে একজন কার্টুনিস্ট হাতিকে রিপাবলিকানদের প্রতীক হিসেবে উপস্থাপন করেন। সেই থেকে আজ পর্যন্ত মার্কিন নির্বাচনে ডেমোক্রেটদের নির্বাচনী প্রতীক গাধা আর রিপাবলিকানদের নির্বাচনী প্রতীক হাতি।

Add Comment

Click here to post a comment