আন্তর্জাতিক

৮৭ বছরের রীতি ভেঙে ইতিহাস ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী মেলানিয়ার

1aনির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার আগে মার্কিন নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রধান শিরোনাম ছিল ইতিহাস গড়তে চলেছেন হিলারি ক্লিনটন। ডেমোক্রেটিক প্রার্থীর হেরে যাওয়ার পরও খবরের শিরোনাম একই, শুধু হিলারির জায়গায় ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প। ভাবছেন, তিনি আবার কিভাবে ইতিহাস গড়বেন? অনেকটা হাস্যকর মনে হলেও সত্যিই ইতিহাস গড়তে চলেছেন মেলানিয়া।

আমেরিকার ষষ্ঠ প্রেসিডেন্ট ছিলেন জন কুইন্সি অ্যাডামস(১৮২৫-২৯)। তার স্ত্রী লুইজা অ্যাডামস ছিলেন বৃটিশ বংশোদ্ভূত। এরপর আর কোনো ফার্স্ট লেডি আমেরিকার বাইরে থেকে এসে স্বামীর হাত ধরে হোয়াইট হাউজে থাকার সুযোগ পায়নি। মেলানিয়া নাউস ট্রাম্প ১৮৭ বছরের সেই রীতি ভেঙে আবারও হোয়াইট হাউজে প্রবেশ করতে যাচ্ছেন। তাই একদিকে ইতিহাস গড়লেন মেলানিয়া।

যদিও ট্রাম্পের তিন স্ত্রী, তবে আগের দুই স্ত্রী ট্রাম্পকে ছেড়ে যাওয়ায় এখন কোনো প্রতিদ্বন্দ্বীই নেই মেলানিয়ার সামনে। মেলানিয়া নাউস স্লোভেনিয়ান বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক। পেশায় মডেল। অলঙ্কার ও ঘড়ির নকশা করেও খ্যাতি কুড়িয়েছেন তিনি। এখন তার সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি ট্রাম্পের স্ত্রী। ১৯৭০ সালে জন্ম নেওয়া মেলানিয়া ১৬ বছর বয়স থেকে মডেলিংয়ে আসেন। তারপর পাড়ি জমান ইতালি। সেখান থেকে যুক্তরাষ্ট্র। তারপর শুরু হয় ট্রাম্পের সঙ্গে প্রেমকাহিনী। ২০০৫ সালে ট্রাম্পকে বিয়ে করে এখনো সংসার করে যাচ্ছেন মেলানিয়া। ব্যারন উইলিয়াম ট্রাম্প নামে তাদের বছর দশেকের এক পুত্র সন্তান রয়েছে। মেলানিয়া বেশ কিছু আন্তর্জাতিক ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ মডেল হয়েছেন।

ভিডিওঃ প্রকাশ্যে যৌন কর্মী ভাড়া করা হচ্ছে চৌরাস্তায়; ভিডিও

Add Comment

Click here to post a comment