লাইফ স্টাইল

১২ সপ্তাহেই ৬ প্যাক!

কোন লাভ না হলেও শরীর ফিট রাখতে নানা পন্থা অবলম্বন করে মানুষ। তবে লন্ডনের এক ব্যাংকার মাত্র ১২ সপ্তাহে অবিশ্বাস্যভাবে পেশী বানিয়ে সারা বিশ্বে তোলপাড় সৃষ্টি করেছেন। আগে তার স্বাস্থ্য ভাল ছিল না। কিন্তু এখন তিনি পেশীবহুল একজন যুবক।

তার নাম নিক ডেকিন। বয়স ২৮ বছর। তিনি কখনও ভাবতে পারেনি তার স্বাস্থ্য এমন সুদর্শন হতে পারে। তিনি মনে করতেন, তিনি খুব দুর্বল প্রকৃতির মানুষ। কিন্তু মাত্র ১২ সপ্তাহের অনুশীলনেই তার শারীরিক গঠন পাল্টে গেছে। তিনি এখন সুদর্শন এক যুবক। এখানে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখুন।

প্রশিক্ষণ শুরুর পর প্রতি সপ্তাহে স্বাস্থ্যের উন্নতি লক্ষ করেন নিক ডেকিন

নিক জানান, প্রায় ৬৫ ভাগ মানুষই মনে করে তাদের স্বাস্থ্য খারাপ এবং কখনও তারা পেশীবহুল হতে পারবে না। আজকাল অনেকে স্বাস্থ্য ভাল করার জন্য মেদ কমান। কিন্তু তিনি শুরু করেন উল্টোভাবে। তিনি অ্যান্ডি পিলিডেস নামে এক শারীরিক প্রশিক্ষকের কাছে থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়া শুরু করেন। স্বাস্থ্য বাড়ানো ও নিয়মিত জিম করা শুরু করেন।

নিক ডেকিন

প্রশিক্ষক অ্যান্ডির সঙ্গে নিক ডেকিন
তার প্রশিক্ষক অ্যান্ডি পিলিডেসও জনপ্রিয় ও খুব দক্ষ একজন প্রশিক্ষক। শুরুতে তিনি তাকে প্রতি সপ্তাহে নির্দিষ্ট রুটিন তৈরি করে দিলেন। সেই রুটিন মোতাবেক তাকে প্রশিক্ষণ নিতেন বললেন। কিছুদিন প্রশিক্ষণ করার পরই শারীরিক উন্নতি লক্ষ করলেন নিক। তাতে তার আত্ববিশ্বাস বেড়ে গেল।

নিক ডেকিন

কিছুদিন প্রশিক্ষণের পরই শারীরিক উন্নতি লক্ষ করেন এবং তাতে আত্ববিশ্বাস বেড়ে যায় নিকের

নিক বলেন, ‘অবিশ্বাস্য ভাবে আমি আমার পরিবর্তন লক্ষ করছিলাম। অথচ আমি খুব বেশি সময় দিতাম না। সপ্তাহে মাত্র তিন ঘন্টা সময় দিতাম। আর খাবারের দিকে একটু নজর রাখতাম। তাতে আমার স্বাস্থ্যর পরিবর্তন শুরু হল।’

প্রশিক্ষক অ্যান্ডি পিলিডেসের প্রশংসা করে নিক জানান, ‘অ্যান্ডি খুব দক্ষ একজন প্রশিক্ষক। তিনি প্রতিদিন আমার স্বাস্থ্যের আরও ভালো করার জন্য চেষ্টা করতেন। প্রত্যেক প্রশিক্ষণে তিনি খুবই সচেতন থাকতেন এবং আমাকে নির্দেশনা দিতেন।’

নিক ডেকিন

অ্যান্ডি খুব দক্ষ একজন প্রশিক্ষক। তিনি প্রতিদিন নিজের স্বাস্থ্যের ভালো করার জন্য চেষ্টা করতেন

এভাবে কিছুদিন প্রশিক্ষণ করার পরই তার স্বাস্থ্যে খুবই উন্নতি শুরু হয়। এমনকি পোশাক পরতে গেলে নিজে স্বাস্থ্যের উন্নতি লক্ষ করেন। টি-শার্ট পরতে গেলে বাহু টান টান হতে শুরু করে। আগের পোশাকগুলো ছোট ও টাইটও হয়ে যায়।
প্রশিক্ষণের সময় তার ওজনও বাড়ে। আর শরীরের মেদের পরিমাণ কমে ৮ ভাগ থেকে কমে ৫.৬ ভাগে দাঁড়ায়। তাতে তার শরীরের গঠন আকর্ষণীয় হয়ে উঠে। বর্তমানে তিনি একজন সুদর্শন যুবক।

নিক ডেকিন

প্রশিক্ষণরত অবস্থায় নিক ডেকিন ও অ্যান্ডি। মাত্র করেকদিন পরই শরীরের মেদ কমে ৮ ভাগ থেকে কমে ৫.৬ ভাগে দাঁড়ায়

প্রশিক্ষক অ্যান্ডি নতুন এক ধরনের শারীরিক চর্চার ধরণ আবিষ্কার করেছেন। নিচের ভিডিওতে সেটি দেখানো হলো।এখানে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখুন।

Add Comment

Click here to post a comment