অন্যরকম খবর বিনোদন

হিরো আলম যখন কেনিয়ায়

কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে থাকেন স্টিফেন ওকোথ। কিবেরার গরীব এলাকায় তার বাস। সেখানকার অধিকাংশ বাসিন্দাকেই অভাবের সঙ্গে যুদ্ধ করতে হয়। ফলে তাদের পরনের পোশাকও থাকে জীর্ণ ও মলিন। আর সে কারণেই স্টিফেন সবার কাছে পেয়েছে আলাদা কদর।

নাইরোবির অনেকেই স্টিফেনকে চিনে থাকেন তার ফ্যাশনের জন্য। চিত্রগ্রাহক ও পরিচালক হিসেবে পেশাগত জীবন গড়ে তুলতে চান স্টিফেন ওকোথ। তাই রঙ বেরঙের পোশাক পরতে ভালোবাসেন। আর এই নেশাই তাকে স্থানীয়দের কাছে পরিচিত করে তুলেছে।

সবসময়ই তিনি বাহারি রঙের পোশাক পরে থাকেন। চলাফেরায় সবসময় র‍্যাম্পের ছন্দ বজায় রাখেন। ফলে তাকে দেখলে সবসময়ই মনে হয় যেন ফ্যাশন শো করছেন।

বাহারি রঙেরই শুধু নয়, সবসময় নতুন পোশাক পরে সবাইকে হতবাক করতে চান ২৫ বছর বয়সী স্টিফেন। এ জন্যে তাকে গোপনে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়।

কেনিয়ার বেশিরভাগ মানুষের মতো তার উপার্জনও খুব ভালো নয়। কিন্তু নিত্য নতুন পোশাক পরতে হলে যে অর্থ গুনতে হয় অনেক! সেটি ওকোথের পক্ষে অসম্ভব ব্যাপার।

তাই তিনি নিয়মিত পুরনো জামাকাপড়ের মার্কেটে ঘোরাঘুরি করেন। নাইরোবির গিকোম্বা মার্কেটে পুরনো কাপড়ের কয়েকশ’ দোকান রয়েছে। সাধারণত যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের দেশগুলো থেকে নানা ডিজাইনের পোশাক আসে।

সেখান থেকেই পছন্দের কোনো জামা মাপে হলে অল্প দামে তিনি তা কিনে ফেলেন। আর এভাবেই নিত্য নতুন কাপড় পরে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেন তিনি। হোক সেটি পুরনো, কে জানতে আসছে?



সর্বশেষ খবর