Advertisements
অন্যরকম খবর

স্বামী এবং দুই সন্তান ফেলে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন

দুই সন্তানের মা আঁখির সঙ্গে বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে প্রেমিক রাসেল। দিনের পর দিন চলতে থাকে তাদের অবৈধ মেলামেশা। এক সময় রাসেলকে বিয়ের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে আঁখি। তখনই সুযোগ বুঝে আঁখিকে ফেলে উধাও হন রাসেল। তাই রাসেলকে বিয়ে করতে তাদের বাড়িতে অনশন করছেন প্রেমিকা।

রাজবাড়ী পাংশা উপজেলার ধুলিয়াট গ্রামের ঘটনা এটি। আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে রাসেলের বাড়িতে অনশন করছেন আঁখি খাতুন (২২)। সে উপজেলার পৌর শহরের আছির উদ্দিন শেখের মেয়ে।

সকালে থেকে আঁখি উপজেলার মৌরাট ইউপির ধুলিয়াট গ্রামের ইসমাইল মিয়ার ছেলে কলেজছাত্র রাসেল মিয়ার (২৩) বাড়িতে উঠে এ বিয়ের দাবি করে আসছেন। ওই প্রেমিকাকে দেখতে বাড়িতে উৎসুক জনতার ভিড় জমেছে।

স্থানীয়রা জানান, চার বছর আগে স্কুলে লেখাপড়া অবস্থায় দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাদের প্রেমের সম্পর্ক পরিবারের লোকজন জানতে পারলে ওই প্রেমিকাকে অনত্র বিয়ে দিয়ে দেয়। কিন্তু বিয়ের পরেও তারা দুজন তাদের সম্পর্ক চালিয়ে যায়।

ওই প্রেমিকা বলেন, ‘বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করেছে রাসেল। সর্বশেষে গত সপ্তাহে আমাকে বিয়ে করবে বলে ঢাকায় নিয়ে এক সপ্তাহ তার সঙ্গে রাখেন। এখন সে যদি আমাকে বিয়ে না করে তাহলে আমি তার বাড়ি ছাড়বো না।’

রাসেলের খালা খাদিজা বলেন, ‘রাসেল বাড়িতে নেই। এ অবস্থায় আমরা কী করবো বুঝতে পারছি না।’ রাসেলের মা শাহনাজ বলেন, ‘আমার ছেলে যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে থাকে তাহলে বিয়ের ব্যবস্থা করবো।’

ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান প্রামানিক বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খোঁজ খবর নিচ্ছি।’

পাংশা থানার অফিসার ইনচার্জ মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, ‘এ ব্যাপারে থানায় কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।’

Advertisements