রাজনীতি

সেই সময়ে আপনারা জাসদ গঠন করলেন কেন?

e তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনুর প্রতি ইঙ্গিত করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আমি একটা প্রশ্ন করতে চাই- সেই সময়ে আপনারা জাসদ গঠন করলেন কেন? আওয়ামী লীগে ছিলেন, আওয়ামী লীগের বড় বড় নেতা ছিলেন আপনারা।

তিনি বলেন, ‘আ স ম আবদুর রব চার খলিফার একজন, শাহজাহান সিরাজ চার খলিফার একজন। সিরাজুল আলম খান ও জলিল তারা কেন জাসদ তৈরি করলেন?’

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় বিএনপি মহাসচিব এসব প্রশ্ন করেন।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছিল। এদেশের আশা-আকাংখা পূরণ করতে তারা ব্যর্থ হয়েছিল। তাদের দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি এমন একটা পর্যায় গিয়েছিল যে, তাদের লোকেরাও তাদের (আওয়ামী লীগ) কাছ থেকে বেরিয়ে চলে এসেছিলেন।

এসময় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকতে নতুন প্রজন্মের কাছে ক্ষমতাসীনরা বিকৃত ইতিহাস তুলে ধরছে। আমরা আমাদের জাতিসত্ত্বা নিয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে চাই। সেজন্য আমরা সত্য কথাগুলো আমাদের প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে চাই।’

‘কিন্ত এরা (আওয়ামী লীগ) কী করছে? অত্যন্ত সচেতনভাবে পরবর্তী প্রজন্মকে একটা মিথ্যা ধারণা দিচ্ছে, ভুল ধারণা দিচ্ছে, বিকৃতি ইতিহাস তুলে ধরছে’ যোগ করেন তিনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সেই ইতিহাসে লাভটা কী হবে? লাভটা হবে তাদের। তারা দীর্ঘদিন ক্ষমতায় টিকে থাকার সুযোগ করে নিতে চাচ্ছে। ক্ষতিটা হবে কার- এ জাতির, এ জাতি নিজস্ব স্বীকয়তা হারিয়ে ফেলবে। তার নিজস্ব যে গৌরব, সেই গৌরবগাঁথা হারিয়ে ফেলবে।’

বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে সমাবেশ করতে সরকারের অনুমতি না দেয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ওরা (আওয়ামী লীগ সরকার) ৭ নভেম্বরকে ভয় পায় বলে আমাদের সমাবেশ করতে দেয় না। মানুষ যদি এক সাথে হয় সেজন্য তারা ভয় পায়।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভয় পায় বলে তারা নির্বাচন দেয় না। ভয় পায় বলে তারা সংবিধান থেকে গণভোটের ব্যবস্থা তুলে নিয়েছে। জনগণ থেকে তারা দূরে দূরে থাকে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ এতোই দেউলিয়া রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছে যে, তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। পুলিশ ও আইনশৃংখলা বাহিনীর ওপর এখন তাদের নির্ভর করতে হচ্ছে।’

আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে ও হেলেন জেরিন খানের পরিচালনায় এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, কেন্দ্রীয় নেতা নুরজাহান ইয়াসমীন, রাজিয়া আলীম, পিয়ারা মোস্তফা প্রমুখ।

ভিডিও:ভয়ঙ্কর বিষাক্ত সাপের বিষ দাত যেভাবে ভাঙ্গে সাপুড়েরা !! দেখলে আপনি নড়েচড়ে বসবেন !দেখুন (ভিডিও)

Add Comment

Click here to post a comment