মতামত/বিশেষ লেখা/সাক্ষাৎকার

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত: সব সরকারের সময়ই সংখ্যালঘুরা নির্যাতিত

123আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা ও সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, বাংলাদেশে ক্ষমতায় আসা সব সরকারের সময়েই সংখ্যালঘুদের প্রতি নির্যাতনের চিত্র দেখা গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে একটি টেলিভিশন চ্যানেলের অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়িয়ে দিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে। কোন প্রকার সুনির্দিষ্ট ধারণা ছাড়াই এসব হামলা পরিচালিত হচ্ছে।’

অতীতে বিভিন্ন হামলার বিচার না হওয়ায় বর্তমানে তা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে বলে মনে করছেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ। তারা মনে করেন হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য আইনের সংশোধন এবং তার যথার্থ প্রয়োগ প্রয়োজন।

অন্যদিকে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলছেন, আইনে না, সংশোধন আনতে হবে মানসিকতায়। তার মতে, সাম্প্রদায়িকতা কাউকে আইন করে শেখানো যায় না।

তিনি মনে করছেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে পরস্পরকে দোষারোপ করার যে প্রথা চালু আছে, সেটায় সংশোধন না আনা পর্যন্ত এই সমস্যার কোন সমাধান মিলবে না।

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের একটি প্রতিবেদন জানায়, ২০০১ সালের পর থেকে পরবর্তী ১৩ বছরে বাংলাদেশে ২০,০০০এর অধিক সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে, আইন ও সালিশ কেন্দ্রের তথ্যানুসারে, ২০১৩ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত অন্তত ২,৫০০ হামলার ঘটনা ঘটে। চলতি বছর অক্টোবর মাস পর্যন্ত হামলা, নির্যাতনের এই সংখ্যা ৩০০ ছাড়িয়েছে।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘আমরা এখন প্রধানমন্ত্রীর দিকে তাকিয়ে রয়েছি। সম্প্রতি সংখ্যালঘুদের ওপর পাবনাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যে নৃশংস হামলার ঘটনা ঘটেছে, সে ব্যাপারে অবশ্যই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

Add Comment

Click here to post a comment