বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি স্বাস্থ্য

সুপারবাগ খেয়ে ফেলেছে ক্যান্সার পেসেন্টের পুরুষাঙ্গ

1ক্যান্সারে আক্রান্ত এক লোক অভিযোগ তুললেন এসেক্সের এক হসপিটালের বিরুদ্ধে। তিনি এমন এক সুপারবাগে আক্রান্ত হয়েছেন যা তার পুরুষাঙ্গ খেয়ে ফেলেছে।

৬১ বছর বয়সী অ্যান্ড্রু লেন নেক্রোটিজিং ফ্যাসিটিস এর সংক্রমণের শিকার হন। সাউদেন্ড হসপিটালে তার প্রোস্টেট গ্লান্ডে অস্ত্রোপচার হয়। তখনই এই ভয়াল সুপারবাগ সংক্রমিত হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই সুপারবাগ মাংস খেয়ে ফেলে।

অস্ত্রোপচারের সময় তার পেট ফুটো করা হয়। আর এ কারণেই সংক্রমণ ঘটে বলে সন্দেহ তার।

এনএইচএস ইংল্যান্ড জানায়, নেক্রোটিজিং ফ্যাসিটিস এক বিরল কিন্তু মারাত্মক অবস্থার নাম। এর সংক্রমণে এক ধরনের বিষাক্ত উপাদান নির্গত হয়। এর বিক্রিয়ায় আশপাশের টিস্যু স্ফীত হয়ে ওঠে এবং ফোসকা দেখা দেয়। সময়মতো চিকিৎসা না দেওয়া হলে সেপসিস দেখা যায় যা প্রাণঘাতী হতে পারে।

লেন জানান, তার পুরুষাঙ্গ থেকে এমন ক্ষতিগ্রস্ত টিস্যু সরিয়ে ফেলতে হয়েছে। এর সংক্রমণে গোটা যৌনাঙ্গই হারিয়েছেন তিনি। এ ছাড়া পাকস্থলির বাইরের টিস্যুও যেন খেয়ে ফেলেছে সুপারবাগ। ”এ এক ভয়াল সুপারবাগ। আমার পুরুষাঙ্গ খেয়ে ফেলেছে। ”

Travel:  

  1. ঘুরে আসুন মেঘের রাজ্য সাজেক ভ্যালীতে (৩ রাত এবং ২ দিন) ৫৫০০/-
  2. ঘুরে আসুন ইন্ডিয়া –ভুটান 

২০১৩ সালে অস্ত্রোপচারের পর থেকে তিনি ক্যাথেটার এবং কোলস্টোমি ব্যবহার করছেন। বলেন, ”এই অভিজ্ঞতা এক দুঃস্বপ্নের মতো। মনে হতো, আমি বুঝি মারা যাচ্ছি। পুরুষাঙ্গের টিস্যু সরাতে তিনবার অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয় আমাকে। ক্ষতিগ্রস্ত টিস্যু শুধু বেরিয়ে আসছিল। ”

এসব ঘটার আগে আমি পুরোপুরি সুস্থ-সবল এক মানুষ ছিলাম। আমার দেহ ছিল ফিট। কিন্তু এখন আমার পেট দেখলে মনে হয় নয় মাসের গর্ভবতী আমি। আমি নিজের দিকে তাকাতে পারি না।

সাবেক এই আর্কিটেকচারাল ড্রাফটসম্যান বলেন, এখন আর মনে হয় না তিনি পুরনো পেশায় ফিরতে পারবেন। আমি এর আগে কখনোই এমন বাগের কথা শুনিনি। একটা সুপারবাগ আপনার দেহের মাংস খেয়ে ফেলছে- এ কথা ভাবাই যায় না। তাই এর বিষয়ে মানুষকে সচেতন করতে হবে। আর যেন একটা মানুষও এতে আক্রান্ত না হয় তা নিশ্চিত করা দরকার।

ক্লিনিক্যাল নেগলিগেন্স স্পেশালিস্ট নিক গ্রিভস জানান, মিস্টার লেনের বিশ্বাস ছিল, তিনি হাসপাতালে যাবেন আর অপারেশন করে কয়েক দিন পরই বাড়ি ফিরবেন সুস্থ হয়ে। কিন্তু তিনি স্থায়ী এবং জীবন বদলে দেওয়া ক্ষতির শিকার হলেন। যদিও এখন আর কিছুই বদলাবে না, কিন্তু তিনি জানতে চান এমন কি হয়েছিল। তা ছাড়া তিনি এমন কিছু করতে চান যার ফলে আর কেউ কখনো এতে আক্রান্ত হবে না।

এদিকে, সাউদেন্ড হসপিটাল ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট তার অভিযোগের বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

ভিডিওঃ ডিজে পার্টির নামে যা চলছে ঢাকায়; ভিডিওতে দেখুন

Add Comment

Click here to post a comment