Advertisements
গাজীপুর ঢাকা বিভাগীয় সংবাদ

শ্রীপুরে বস্তাবন্দি ইউপি সদস্য উদ্ধার, পুলিশ বলছে নাটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর: গাজীপুরের শ্রীপুর থানা পুলিশ শনিবার সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চন্নাপাড়া এলাকার জলাশয় থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় ইউপি সদস্য বদরুল আলম ভূইয়াকে (৬২) উদ্ধার করেছে। তিনি কিশোরগঞ্জ জেলার বাজিতপুর থানার ইলিয়াছ আলীর পুত্র ও ৪নং সরারচর ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য।

বদরুল জানান, ঢাকাস্থ উত্তরার আশকোনা এলাকার সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টারের মালিক সাগর খান ও তার সহযোগী অমি বিদেশে লোক পাঠানোর কথা বলে তিন বছর আগে তার মাধ্যমে কিশোরগঞ্জ এলাকার ২০ জন লোকের কাছ থেকে ৩৫ লাখ টাকা নেন। তারপর থেকে সাগর খান ও অমি বিদেশে লোক না পাঠিয়ে টালবাহানা করতে থাকে। ১৫ জুন বদরুল সাগর খানের নিকট পাওনা টাকা চাইতে যান। সাগর ও অমি টাকা দেয়ার কথা বলে দিনভর তাকে বসিয়ে রাখেন। সন্ধ্যায় সাগর ও অমির সাথে ইফতার করার পর বদরুল জ্ঞান হারান। শনিবার সকালে জ্ঞান ফিরলে বদরুল নিজেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় আবিষ্কার করেন। এ সময় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চন্নাপাড়া এলাকায় ডিভাইন টেক্সটাইল মিলের পাশে ডোবার মধ্যে ‘আল্লাহ আল্লাহ’ শব্দ শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে গিয়ে বস্তায় বদরুলকে দেখতে পান। সংবাদ পেয়ে শ্রীপুর থানার এস আই জামিল হোসেন রাশেদ তাকে উদ্ধার করে শ্রীপুর হাসপাতালে এনে চিকিত্সা দেন।

বদরুল অভিযোগ করেন, সাগর খান ও তার সহযোগীরা তাকে মৃত ভেবে বস্তায় ভরে রাস্তার পাশে ঐ স্থানে ফেলে যায়। বদরুলের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম তার বাবাকে শ্রীপুর থানা থেকে নিয়ে যান। বদরুল জানান, তিনি সাগর খান ও অমির বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেবেন। তবে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান ইত্তেফাককে বলেন, এটি একটি সাজানো ঘটনা। পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে টাকা উদ্ধারের জন্য এটি একটি কুট-কৌশল।

Advertisements