লাইফ স্টাইল

শুধু জামাকাপড়ের নয়, ঘর সাজাতেও মাথায় রাখুন ‘স্টেপল্‌স’এর কথা

পোশাক-আশাক বাছার ক্ষেত্রে অনেকেই বলে থাকেন, স্টেপল্‌সের উপর ভরসা রাখতে। সাদা শার্ট, কটন ট্রাউজার্স, খাদি কটন, ক্লাসিক জিন্‌স, পেন্সিল স্কার্ট, বাংলার তাঁত, কাঞ্জিভরম শাড়ি— এসব যেমন ওয়ারড্রোব গোছানোর সময় ‘মাস্ট’, সে রকমই ঘর সাজানোর সময়ও কতগুলো ‘টাইমলেস’ জিনিস রাখার চেষ্টা করুন। দেখবেন, ঘরের চেহারাই বদলে গিয়েছে!

ড্রয়িংরুমে একটা ইজিচেয়ার রাখুন। ঘরে ইজিচেয়ারের ব্যবহার কিন্তু শুধু ডেকরের জন্যই নয়, একটা সাইকোলজিক্যাল কারণও রয়েছে এর। অতিথিরা নাকি বাড়িতে ইজিচেয়ার দেখলে হোস্টের সঙ্গে কমফর্টেব্‌ল হয়ে যান। যদি ড্রয়িংরুমে সেন্টারটেবিল এবং সোফাসেট দিয়ে জায়গা ভরে গিয়ে থাকে, তাহলে ইজিচেয়ার পাতুন বারান্দা বা ছাদে। সেখানে শেড দেওয়া থাকলে তো কথাই নেই!

ড্রয়িংরুমে অনেকে প্রচুর আলো ব্যবহার করতে ভালবাসেন। টিউবলাইট বা এলইডি’র বদলে একটা ঝাড়বাতি লাগান। ডিজাইনটা যেন আধুনিক হয়। আর ওপেন ফ্লোর হলে তার চারদিকের দেওয়ালে চারটে উজ্জ্বল ফ্লোরলাইট্‌স লাগান। যদি ফ্লোরের চারপাশ আসবাবে ভরা হয়, তাহলে জায়গামতো স্ট্যান্ডলাইট্‌স বসান। পেপারফ্রাই

ডট কমে দারুণ সব অপশন পেয়ে যাবেন। বাড়িতেও বানিয়ে নিতে পারেন।
পোশাকের ক্ষেত্রে যেমন ব্লু ডেনিম আর হোয়াইট শার্ট কোনওদিন স্টাইল-চ্যুত হবে না, তেমন কালার কো-অর্ডিনেট্স হিসেবে ঘরের সাজেও এর কদর সমান। দিদির রাজ্যে ‘নীলসাদা’র ভূমিকা অবশ্য পাল্টে গিয়েছে বেশ খানিক! কিন্তু রং-বিশারদ এবং হোমডেকরের বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, সাদা আর স্কাই ব্লু’এর কম্বিনেশন হল গিয়ে পুরোদস্তুর ক্লাসিক! কোনওদিন যা বদলায় না। শরৎকালের আকাশটা মনে করুন। দেখলেই মনখুশ তো? সে রকমই দেওয়াল, ওয়ালআর্ট, পরদা, বসার জায়গা, বেডকভার বুঝে ব্যবহার করুন নীল এবং সাদা। রিলিফের জন্য রাখুন বেজ বা ক্রিমের শেডও। এতে ঘরে প্রচুর আলো খেলবে। আর দেখবেন, বাড়ির সকলে তো বটেই, অতিথিরাও আপনার ঘরে পা দিয়ে বেশ খোশমেজাজে রয়েছেন!

ওয়ালআর্টের জন্য চারকোল ড্রয়িং, অ্যাবস্ট্রাক্ট প্রিন্ট, সাদা-কালো ফোটোগ্রাফ ইত্যাদি ক্লাসি দেখতে কাঠের ফ্রেম করে নিয়ে পাশাপাশি সাজান। ঝোলাবেন না কিন্তু। ঘরদোর বেশ ট্রেন্ডি দেখাবে। মাঝে মাঝে ছবিগুলো পাল্টে নিতে পারেন। একঘেয়েমি কেটে যাবে।

টেরেস কিংবা ছাদে একচিলতে বাগান করুন। ঘর সাজানোর এটাও কিন্তু একটা ‘স্টেপ্‌ল’! আর যেদিকে বাগান করবেন, সেদিকের দরজা বা জানলায় কাচ বসান। যাতে বাইরের দিকে নজর গেলে সবুজের ফিল্টার থাকে। রেস্ত বেশি থাকলে গার্ডেন ফাউন্টেন বসাতে পারেন। ৪,৫০০ টাকা থেকে দাম শুরু। বিভিন্ন হস্তশিল্প মেলাতেও ইদানীং পাওয়া যাচ্ছে।

মনে রাখবেন, ঘর সাজানোর সময় বিভিন্ন টেক্সচার এবং ডিজাইনের একটা মিলমিশ রাখুন। কতগুলো জিনিস কোনওদিনই আউট-অফ-স্টাইল হয় না। যেমন, ন্যাচারাল ফাইবারের রাগ বা কার্পেট। বেতের চেয়ার-টেবিল-ফুলদানি-আলো। টেক্সচার্ড কাঠের তৈরি শো-পিস, বুককেস, বাক্স, দাবার সেট। টরটয়েজ শেলের তৈরি ল্যাম্প বা ছোট ছোট বাক্স। নিউট্রাল বাটিক প্রিন্ট কিংবা ইক্কতের পরদা। ঘরে অভিজাত একটা আমেজ আসবে এগুলোতে।

ভিডিও:বিশাল মালবাহী জাহাজ কিভাবে মাল খালাস করলো দেখলে আপনি হা হয়ে যাবেন (ভিডিও)

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment