Advertisements
খেলা-ধুলা

লোকেশ রাহুল বিশ্ব রেকর্ড স্পর্শ করলেন

কে বলবে এই ব্যাটসম্যান ইনজুরির কারণে মাঝে কয়েক মাস খেলার মাঝেই ছিলেন না! তার ধারাবাহিকতা এমনই যে ফিট হতেই অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলে দিয়েছেন লোকেশ রাহুলকে রাখতেই হবে একাদশে। রেখেছেন। আর তার ফলও পাচ্ছেন। টানা ৭ ইনিংসে ফিফটি বা পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলে বিশ্ব রেকর্ডে নাম লিখিয়ে ফেলেছেন ভারতের এই ওপেনার। গিয়ে দাঁড়িয়েছেন স্যার এভারটন উইকস, অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার, কুমার সাঙ্গাকারাদের পাশে। পাল্লেকেলের তৃতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফিফটি করেই শনিবার ওই বিশ্ব রেকর্ডে নিজের নাম তুলেছেন রাহুল।

২৫ বছরের রাহুলের এবারের ইনিংসটা ৮৫ রানের। উদ্বোধনী জুটিতে শিখর ধাওয়ানের সাথে মিলে ১৮৮ রান এনে দিয়েছেন। ভারত যাতে পেয়েছে শক্ত ভিত্তি। আর রাহুল তো ইতিহাসের পাতায় উঠে গেছেন। তারা টানা ৭ ফিফটি যথাক্রমে ৯০, ৫১, ৬৭, ৬০ ও ৫১ (অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে, ২০১৭ ফেব্রুয়ারি-মার্চে)। এরপর গলের প্রথম টেস্ট জ্বরের কারণে মিস করেছেন। কলম্বোতে ভারতের একমাত্র ইনিংসে করেছিলেন ৫৭ রান। এবার ৮৫।

টেস্টে টানা ৬ ইনিংসে সেঞ্চুরির রেকর্ডের তালিকাটা বেশ দীর্ঘ। কলম্বোতে সেই তালিকায় রাহুলের নাম যোগ হয়েছিল ২৫তম কীর্তি হিসেবে। সেখানে রাহুলের আগে ছিল আর মাত্র দুই ভারতীয়র নাম। একজন গুন্ডাপ্পা বিশ্বনাথ। অন্যজন রাহুল দ্রাবিড়। কিন্তু এবার যে এলিট তালিকায় নাম লেখালেন লোকেশ রাহুল সেখানে ইতিহাসে কখনোই কোনো ভারতীয় ব্যাটসম্যান পৌঁছাতে পারেননি।

একবার চোখ রাখুন সেই তালিকায়। ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্যার এভারটন উইকস ১৯৪৮-৪৯ সালে প্রথম এই কীর্তি গড়ে দেখান টেস্টে। দীর্ঘদিন বিশ্ব রেকর্ডটা একার করে রেখেছিলেন তিনি। এরপর ২০০০-২০০১ এ জিম্বাবুয়ের গ্রেট অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার সেই রেকর্ডে ভাগ বসান। ২০০৬-২০০৭ এ আরেক ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান এই বিশ্ব রেকর্ড স্পর্শ করেন। তিনি শিবনারায়ন চন্দরপল।

এরপর ২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা বিশ্ব রেকর্ডটা ছুঁয়ে ফেলেন। পরের বছরই অস্ট্রেলিয়ার ক্রিস রজার্স সেখানে উঠে আসেন। লোকেশ রাহুল ইতিহাসের ষষ্ঠ ও প্রথম ভারতীয় হিসেবে সেই বিশ্ব রেকর্ডে তুলে ফেলেছেন তার নাম। তার সামনে সুযোগ আছে পরে যে ইনিংস পান সেটিতে আর একটি ফিফটি করে নতুন বিশ্ব রেকর্ড গড়ে ফেলার।

Advertisements