ঢাকা

রাজধানীর শাহবাগে বিক্ষোভের মুখে হানিফ, সংহতি প্রকাশ

rরাজধানীর শাহবাগে অবরোধকারীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। পরে তিনি বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির এবং বাড়িঘর ভাঙচুরের প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করা হয়।

এর আগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। সেখান থেকেও কয়েকটি সংগঠনের নেতাকর্মীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে যোগ দেন।

তারা শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত শাহবাগ মোড় অবরোধ করে রাখেন। এ সময় ওই পথ দিয়ে যাওয়ার সময় বিক্ষোভকারীদের তোপের মুখে পড়েন হানিফ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি অনুষ্ঠান শেষে শাহবাগ দিয়ে যাচ্ছিলেন মাহবুব উল আলম হানিফ। এ সময় বিক্ষোভকারীরা তার গাড়ি ঘিরে ধরেন। তাদের কেউ কেউ হানিফের গাড়িতে লাথি মারেন।

এক পর্যায়ে হানিফ গাড়ি থেকে নেমে এসে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন। নাসিরনগরে হামলায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দেন তিনি।

বিক্ষোভকারীদের তোপের মুখে পড়ার বিষয়ে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অনুষ্ঠান শেষে শাহবাগে আসলে আন্দোলনকারী কিছু ছাত্র আমার গাড়ি রোধ করে। আমি যে গাড়ির ভেতরে ছিলাম তা তারা দেখেনি। পরে আমি নেমে এসে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দিলে তারা আমার গাড়ি ছেড়ে দেয়।’

শাহবাগ মোড় অবরোধের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার ও শাহবাগ থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক।

ওসি আবু বকর সিদ্দিক যুগান্তর অনলাইনকে বলেন, অবরোধের সময় আন্দোলনকারীরা ওই রাস্তা দিয়ে কোনো গাড়ি যেতে দিচ্ছিল না। এ সময় মাহবুব উল হানিফ গাড়ি নিয়ে সেখান দিয়ে যাচ্ছিলেন। আন্দোলনকারীরা বুঝতে পারেননি যে সেই গাড়িতে মাহবুবউল হানিফ আছেন। তাই গাড়িটিতে তারা আটকে দিয়েছিলেন। পরে গাড়ি থেকে নেমে তিনি আন্দোলনকারীদের পক্ষে বক্তব্য দেয়ার পর তার গাড়িকে যেতে দেয়া হয়।

শাহবাগ থানার ডিউটি অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, রাস্তা অবরোধের আধা ঘণ্টা পর আন্দোলনকারীরা পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষণা করে শাহবাগ মোড় থেকে সরে যায়। সন্ধায় আন্দোলনকারীরা বিক্ষোভ মিছিল করবে বলে ঘোষণা দেয়।

Add Comment

Click here to post a comment