Advertisements
অপরাধ/দুর্নীতি

রাজধানীতে ঢাবি শিক্ষার্থীসহ দুই পথচারী গুলিবিদ্ধ

রাজধানীর হাতিরপুলে দুর্বৃত্তের গুলিতে ঢাবি শিক্ষার্থীসহ দুই পথচারী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাত সোয়া নয়টার দিকে ওই এলাকার হোসেন স্টোরের সামনে এ ঘটনা ঘটে। কে বা কারা গুলি ছুড়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ।
আহত ঢাবি শিক্ষার্থীর নাম আশরাফুল আলম (২৮)। তার ডান পায়ে গুলি লেগেছে। তিনি ইভনিং এমবিএ’র ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেমসের (এমআইএস) ছাত্র। অপর গুলিবিদ্ধ পথচারীর নাম আশিক মাহমুদ (২৭)। তিনি সৌদি আরব প্রবাসী। তার বাম হাতে গুলি লেগেছে।
নিউমার্কেট থানার এসআই নগেন্দ্র কুমার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি  জানান,  ‘আহতরা পথচারী। তবে কে বা কারা গুলি ছুড়েছে তা এখনও জানা যায়নি।’
এসআই নগেন্দ্র কুমার আরও বলেন, ‘ঘটনাস্থলে কয়েকজন যুবক বসে ছিল। হঠাৎ গুলির শব্দ পাওয়া যায়। ওই গুলিতে দুজন পথচারী আহত হন ।’
গুলিবিদ্ধ আশরাফুলের ছোটভাই আরিফুল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ‘তার ভাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইভনিং এমবিএ’র ক্লাস শেষ করে সাইকেলে করে বাসায় ফিরছিলেন। হাতিরপুল বাজারের হোসেন স্টোরের সামনে এলে হঠাৎ গুলির শব্দ শোনেন এবং পায়ে ব্যথা অনুভব করেন। খানিক দূর যাওয়ার পর দেখেন পা থেকে রক্ত ঝড়ছে। এরপর বাসায় যোগাযোগ করলে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।’আহত ঢাবি ছাত্র আশরাফুল আলম রাজধানীর কল্যাণপুরের আলমগীর কবিরের ছেলে।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর এম আমজাদ আলী আহত আশরাফুল আলমকে ইভনিং এমবিএ-র এমআইএস এর ছাত্র হিসেবে নিশ্চিত করেছেন। তার গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর শুনেছেন বলেও বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন তিনি।

হাসপাতালের ভর্তি আহত প্রবাসী আশিক মাহমুদ জানান, আমি সৌদি আরব থেকে ছুটিতে ১৫ দিন আগে দেশে আসি। রাতে হাতিরপুল বাজারে যাই। সেখানে বেশ কয়েক জন লোক দৌড়াদোড়ি করছিল এবং এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়ছিল। এ সময় ওই গুলি আমার বাম হাতে কনুইয়ের নিচে লাগে। পরে আমার ভাইকে সংবাদ দিলে সে আমাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে।
আশিক মাহমুদ সেট্রাল রোর্ডের ৭০ নম্বর বাসায় থাকেন। তার বাবার নাম আনোয়ার হোসেন।
ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই বাচ্চু মিয়া জানান, আহতদের অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তারা আশঙ্কামুক্ত।

Advertisements