লাইফ স্টাইল স্বাস্থ্য

যে ৫ খাবার ব্যায়ামের পর খাবেন না

দেহের ওজন কমানো, সুগঠিত মাংসপেশি কিংবা সুস্বাস্থ্যের জন্য জন্য ব্যায়াম করছেন? সেসঙ্গে যদি আপনি অস্বাভাবিক কিংবা অস্বাস্থ্যকর খাবার খান তাহলে ব্যায়ামের কোনো উপকারই পাবেন না। এতে দেহের ওজন যেমন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে তেমন উপকারও পাওয়া যাবে না। এ কারণে ব্যায়াম করার পাশাপাশি কিছু খাবারও নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন কিছু খাবারের কথা।

১. অতিরিক্ত চিনিযুক্ত খাবার
শরবত, কোমল পানীয়, বাড়তি চিনি দিয়ে চা বা যেকোনো অতিরিক্ত মিষ্টি খাবার ব্যায়ামের পর পর খাওয়া উচিত না। সুস্থ থাকতে চাইলে চিনিযুক্ত খাবার পরিহার করতে হয়। অনেকেই যেই ভুলটা করে থাকে সব সময় তা হলো ব্যায়ামের পর পরই তৃষ্ণা পেলে কোমল পানীয় কিংবা এনার্জি ড্রিংক খেয়ে নেন।
কিন্তু কোমল পানীয়তে অতিরিক্ত চিনি থাকে যা স্বাস্থ্যর জন্য খুবই ক্ষতিকর। তৃষ্ণা পেলে কোমল পানীয় না খেয়ে পানি অথবা চিনি ছাড়া আইস চা খান।

২. অতিরিক্ত লবণযুক্ত খাবার
ব্যায়াম করলে ঘামের সাথে প্রচুর পরিমাণে পানি ও পটাশিয়াম বের হয়ে যায় শরীর থেকে। এই পটাশিয়ামের অভাব পূরণের জন্য অনেকেই অতিরিক্ত লবণ যুক্ত খাবার বা পানীয় খেয়ে থাকেন। যদিও কিন্তু এর প্রয়োজন নেই। খাবারের সঙ্গে যে লবণ দেহে প্রবেশ করে, তাই যথেষ্ট। পটাসিয়ামের অভাব দূর করতে পুষ্টিকর খাবার খান। বিশেষ করে কলায় প্রচুর পটাশিয়াম আছে। তাই ব্যায়াম করার পর ক্ষুদা লাগলে কলা ও কিছু শুকনো ফল খেয়ে নিন। শরীরের শক্তি ফিরে পাবেন।

৩. ফ্যাটযুক্ত খাবার
অনেকে সামান্য ব্যায়াম করেই পনির, বার্গার, পিজ্জা, বিরিয়ানি, পোলাও ইত্যাদি খাবার খেয়ে ফেলেন। কিন্তু সুস্থ থাকতে চাইলে বা ওজন কমাতে চাইলে ব্যায়াম করেই অতিরিক্ত ফ্যাট যুক্ত খাবার খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। ব্যায়াম করার পর যেকোনো ধরনের ফাস্ট ফুড, ফ্যাট যুক্ত খাবার অথবা তেলে ভাজা পোড়া খাবার এড়িয়ে চলুন। ব্যায়াম করার পর এ ধরণের খাবার খাওয়ার প্রতি ঝোঁক থাকলে মেদ কমার বদলে রক্তের খারাপ কোলেস্টেরল বেড়ে গিয়ে হার্টের অসুখ হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

৪. কেক, পেস্ট্রি
কেক, পেস্ট্রি ,ক্রিম রোল, ডোনাট ইত্যাদি খাবার খেতে খুবই সুস্বাদু। এধরণের খাবার গুলো খেলে পেটে থাকেও অনেকক্ষন। আর ব্যায়াম করার পর প্রচন্ড ক্ষুধা লাগলে এগুলো খেতেও বেশ ভালো লাগে।

ব্যায়াম করার পর শরীরের হারানো গ্লাইকোজেন পূরণ করার জন্য কার্বোহাইড্রেটের বেশ চাহিদা থাকে। কেক কিংবা পেস্ট্রি জাতীয় খাবারগুলোতে প্রচুর কার্বোহাইড্রেট আছে, কিন্তু এগুলোর পুষ্টি উপাদান খুবই কম। তাই এধরনের খাবার এড়িয়ে লাল আটার রুটি কিংবা লাল চালের ভাত খেয়ে কার্বোহাইড্রেটের অভাব পূরন করা উচিত।

৫. শুধু কাঁচা শাক সবজি
অনেকে আবার ব্যায়াম করে ওজন কমানোর পাশাপাশি ডায়েটও করে থাকেন। ব্যায়াম করলে শরীরের প্রচুর ক্যালরি পুড়ে যায়। তাই শরীরে শক্তি যোগানোর জন্য ব্যায়ামের পর দরকার আদর্শ খাবার। ব্যায়ামের পর শরীরের জন্য ক্যালরি, ভিটামিন, প্রোটিনযুক্ত সুষম খাবার দরকার । যারা ডায়েটে শুধু মাত্র সালাদ বা কাঁচা শাক সবজি রাখে তাদের শরীরের প্রয়োজনীয় ক্যালরির চাহিদা পূরণ হয় না। তাই ব্যায়ামের পর শুধু কাঁচা সবজি না খেয়ে সামান্য তেল দিয়ে রান্না সবজি, মুরগির মাংস ইত্যাদি পুষ্টিকর খাবার খাওয়া উচিত। তা না হলে শরীর দুর্বল হয়ে যাবে।

Advertisements

Add Comment

Click here to post a comment